বেশ কয়েকদিন ধরেই বার্ধক্যজণিত কারণে অসুস্থ ছিলেন ইরফান খানের মা সাইদা বেগম। সবটাই জানতেন ইরফান। কিন্তু লকডাউনে ছিলেন তিনি নিরুপায়। আসতে পারছিলেন না মায়ের কাছে। তবুও অপেক্ষায় দিন গহুণছিলেন তিনি। কিন্তু রবিবারই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। জয়পুরে মায়ের মৃত্যুর খবর পাওয়া মাত্রই ভেঙে পড়েছিলেন ইরফান খান। আসতে পারেননি মায়ের কাছে। 

এরপরই পাল্টে যায় সবটাই। মায়ে চলে যাওয়ার খবর সহ্য করতে পারলেন না ইরফান। ডুকরে ডুকরে হলেন অসুস্থ। ২০১৮ থেকে যে মারণ রোগ তাঁকে হারাতে পারেনি, ৪৮ ঘণ্টাই তা শেষ করে দিল সব যুদ্ধ। মৃত্যুশয্যায় মা বলেছিলেন সকলকেই,দেখ, ইরফান আসবে, ঠিক আসবে। মায়ের শেষ ইচ্ছে আর পূরণ করা হল না। জয়পুরে আর পা পড়ল না ইরফানের। 

আরও পড়ুনঃ গর্ভধারিনীর মৃত্যুর পরেই ভর্তি হতে হয়েছিল আইসিইউতে, মা-ছেলের ফের দেখা হল জীবনের ওপারে

মুম্বইতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন অভিনেতা। বুধবার সকালে খবর আসতেই তা ঝড় তুলল নেট দুনিয়ায়, সাড়া ফেলল দেশে, ভেঙে পড়ল ভক্ত মহল। বলিউড তারকাদের শোকবার্তায় ভরে উঠল সোশ্যাল মিডিয়ার পাতা। চলেগেলেন বলিউডের কিংবদন্তী অভিনেতা। অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে দেশের প্রধানমন্ত্রী, সকলেরই মুখ একটাই কথা, এ বলিউডের এক বড় ধ্বস। 

করোনা মোকাবিলায় রক্ষা করুন নিজেকে, মেনে চলুন 'হু' এর পরামর্শ

সাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল

কী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস

শরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা