মৃত্যুর ৭ বছর কেটে গেলেও প্রয়াত বলিউড অভিনেত্রী জিয়া খানের যৌন হেনস্তা নিয়ে উত্তাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। অভিনেত্রীর মৃত্যুর কারণ আজও ধোঁয়াশা। সম্প্রতি জিয়া খানের মৃত্যুর এত বছর পর চাঞ্চল্যকর অভিযোগ আনলেন জিয়ার বোন করিশ্মা। সম্প্রতি বলিউডের বিখ্যাত পরিচালক সাজিদ খানের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন জিয়ার বোন।

আরও পড়ুন-আচকমা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আলিয়া ভাট, হঠাৎ কী হল কাপুর পরিবারের হবু বউমার...


সম্প্রতি ৩ টি তথ্যচিত্র বানিয়েছে বিবিসি। যার নাম রাখা  হয়েছে 'ডেথ ইন বলিউড'। সেখানেই জিয়ার রহস্যমৃত্যু নিয়ে অনেক কিছুই উঠে এসেছে। এবার সেই কঠিন বাস্তবকেই সাক্ষাৎকারে জনসমক্ষে তুলে আনলেন জিয়ার বোন করিশ্মা। বিবিসি-র তথ্যচিত্রের দৌলতে যৌন হেনস্তার তালিকায় নাম জুড়ল জিয়া খানের। ২০১৩ সালে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হয় জিয়া খানের। আজও সেই মামলা চলছে আদালতে। জিয়ার প্রেমিক সূরয পাঞ্চোলিকে এখনও দোষী বলে মনে করেন জিয়ার  পরিবার। সেই সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্যও রয়েছে তথ্যচিত্রে।

 

 

এবার জিয়ার বোন সাজিদকে নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য ফাঁস করলেন সকলের সামনে। করিশ্মা জানিয়েছেন, 'হাউসফুল' ছবির শুটিং-এর সময় অস্বস্তিকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছিলেন জিয়া খান। শুটিংয়ের সময় সাজিদ তাকে প্রথমে টপ খুলতে বলেন তারপর সকলের সামনে প্রকাশ্যে ব্রা খুলে ফেলতে বলেন। জিয়া এই সব করতে না চাইলেই চুক্তি ভেঙে দেওয়ার ভয় দেখাতেন সাজিদ। একপ্রকার মানসিক যন্ত্রণা নিয়েই জিয়া কাজ করেন ছবিতে।

 

 

এখানেই শেষ নয়, জিয়ার বোন করিশ্মা নিজেও একটি ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন। মাত্র ১৬ বছর বয়সে জিয়ার সঙ্গে সাজিদের বাড়ি গিয়েছিলেন করিশ্মা। তার বসে থাকার ধরন দেখে সাজিদ বলেছিলেন করিশ্মা নাকি যৌনতার ইঙ্গিত দিচ্ছে। জিয়া অনেকবার বোঝানোর চেষ্টা করে করিশ্মা অনেক ছোট। তাকে যেন এইসব কিছুতে জড়ানো না হয়। মুহূর্তের মধ্যে জিয়ার বোনের এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের নজর কেড়েছে। অনেকেই এই ভিডিও নিজেদের সোশ্যালে শেয়ার করেছেন। ইতিমধ্যেই সাজিদ খানের গ্রেফতারি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন সাইবারবাসী।

২০১৮ সালে মিটু ঝড় আছড়ে পড়েছিল গোটা হলিউডে। তারপর মুহূর্তের মধ্যে সেই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছিল  বলিউডেও। অভিনেতা-অভিনেত্রী থেকে শুরু করে পরিচালক, প্রযোজক কর্মক্ষেত্রে যৌন হেনস্তা নিয়ে অকপটে মুখ খুলেছিলেন। শুধু তাই নয়, প্রত্যেকের নামও প্রকাশ্যে এনেছিলেন। কেউ কেউ আবার কাস্টিং কাউচ নিয়েও মুখ খুলেছিলেন। বলিউড অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তও অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছিলেন। যা নিয়ে রীতিমতো উত্তাল হয়েছিল সোশ্যাল  মিডিয়া। ওই ঘটনার পর থেকেই একের পর এক মডেল অভিনেত্রীরা মি টু নিয়ে সরব হয়েছেন। বলিউডের বিখ্যাত পরিচালক সাজিদ খানের বিরুদ্ধে মি টু অভিযোগ এনেছিলেন মডেল অভিনেত্রী সার্লিন চোপড়া, ব়্যাচেল হোয়াইট, ডিম্পল পল সহ আরও এক সাংবাদিক। এরা সকলেই মানসিক ও শারীরিক ভাবে হেনস্তা হয়েছিলেন।