সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর কারণ কি আত্মহত্যা। কতখানি সত্যতা আছে পুলিশের এই তথ্যে। প্রশ্ন তুলেছে নেটিজেন সহ গোটা দেশ। যত দিন যাচ্ছে ততই তাঁর মৃত্যুকে পূর্বপরিকল্পিত খুন বলে দাবি করছে ভক্তরা। প্রায় এক মাস হতে চলল সুশান্তের মৃত্যুর। তাঁর মৃত্যুর কারণ হিসাবে আত্মহত্যাকে মানতে নারাজ অভিনেতার পরিবারও। এই সন্দেহ মনে নিয়েই কি এবার ভিন্ন তদন্তে নামল মুম্বই পুলিশ। গত ১৪ জুন সুশান্তের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে তাঁর বান্দ্রার বাড়ি থেকে। সেই দিনই কমল আর খানের ট্যুইটে জল্পনা তুঙ্গে। এবার পুলিশও খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছে সুশান্তের মৃত্যুর পিছনের রহস্য। 

আরও পড়ুনঃঅবিকল সুশান্ত, ভিডিও দেখে চমকে উঠে সাইবারবাসী, এ যেন অভিনেতার যমজ ভাই

মুম্বই পুলিশের আধিকারিকের কথা, সুশান্তের বাড়ির সিসিটিভি রেকর্ডিং পুলিশ নিজের হেফাজতে নিয়েছে। তাঁর বাড়ির ভিতর কোনও সিসিটিভি ছিল না বলেই জানা যায়। ফরেনসিক রিপোর্টের অপেক্ষা চলছে। ইতিমধ্যেই পাটনাবাসী একেবারেই থেমে নেই তাদের প্রতিবাদে। ঘরের ছেলের এমন আকস্মিক মৃত্যুতে দুঃখপ্রকাশ করার পাশাপাশি তারা ক্ষোভ উগরে দিয়েছে চারিদিকে। দিন কতক আগে সকালে মিছিল বের করা হয় পাটনার রাস্তায়। সুশান্ত সিং রাজপুত অমর থাকুক। এই স্লোগানই প্রথম কানে আসে ভাইরাল ভিডিওতে। সিবিআই তদন্ত চাই-ই চাই। 

আরও পড়ুনঃহলিউডের 'অ্যাভেঞ্জার্স'কে টপকে গেল 'দিল বেচারা', সুশান্ত নিজের অনুপস্থিতিতেই গড়ে দিলেন রেকর্ড

 

তাহলে কি মুম্বই পুলিশের উপর বিন্দুমাত্র ভরসা নেই পাটনাবাসীর। কেবল পাটনার রাস্তায় নয়, সোশ্যাল মিডিয়ার ফিড জুড়ে একটিই দাবি, সুশান্তের মৃত্যুর সিবিআই তদন্ত হোক। এরই মাঝে সুশান্তের ঘর থেকে পাওয়া সেই সবুজ কুর্তাটি গিয়েছে বিশেষ পরীক্ষার জন্য। পুলিশি তথ্য এবং সুশান্তের পরিচারিকার বয়ান অনুযায়ী, এই কুর্তার সাহায্যেই নাকি গলায় ফাঁস দিয়েছিলেন সুশান্ত। প্রসঙ্গত, পাটনার এই প্রতিবাদ মিছিলের একটি ভিডিও ভাইরাল হয় নেটদুনিয়ায়।