দিল্লী এখন গ্যাসের হিট চেম্বার। কালো ধোয়ায় ছেয়ে গিয়েছে গোটা পরিবেশ। বর্তমানে দূষণের মাত্রা এতটাই বেড়ে গিয়েছে যে সাধারণ মানুষের জীবন নাভিশ্বাস হয়ে উঠছে। এই দূষণ বিষে জেরবার গোটা দিল্লীবাসী। দূষণের মাত্রা দিনের পর দিন এতটাই বেড়ে যাচ্ছে যে স্কুল, কলেজ থেকে বন্ধ করে সবরকম নির্মাণ কাজও বন্ধ রাখতে নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। আপকামিং নেটফ্লিক্সের প্রজেক্ট 'দ্য হোয়াইট টাইগার'-এ অভিনয়ের জন্য দিল্লী এসেছিলেন প্রিয়ঙ্কা। দিল্লীর এই পরিস্থিতি দেখে দূষণ নিয়ে এবার মুখ খুললেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া। 

আরও পড়ুন-শরীরী বিহঙ্গে নেচে ভাইরাল টলিউডের এই বঙ্গতনয়া, দেখুন ভিডিও...

সম্প্রতি মাস্ক পরে নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে তিনি একটি ছবি শেয়ার করেছেন। দূষণের জেরে শ্যুটিং করা ভীষণ কষ্টসাধ্য ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। তার পাশাপাশি দিল্লীর দূষণ নিয়ে গৃহহীনদের উদ্দেশ্যেও তিনি প্রার্থনা করেছেন। আর এই ছবি পোস্টের জন্যই তাকে ট্রোলড হতে হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পোস্ট করা ছবিটিতে পিসি-কে মুখে নীল রঙের মাস্ক এবং সানগ্লাস পরে দেখা গিয়েছে। ছবিটি পোস্ট করে  তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন, 'এই দূষণ পরিস্থিতিতে কাজ করা খুবই কঠিন। আমি ভাবতে পারছি না এই পরিস্থিতিতে মানুষ কীভাবে বেঁচে আছে। গৃহহীনদের জন্য অনেক অনেক প্রার্থনা। সবাই নিরাপদে থাকুন'। এই ক্যাপশনটি লিখেছেন এবং তার নীচে কতগুলি হ্যাশট্যাগও লিখেছেন প্রিয়ঙ্কা।

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Masking our emotions in the Delhi air. @priyankachopra your pose is just ✅ #bts #prescenereading #theskyispink

A post shared by Farhan Akhtar (@faroutakhtar) on Nov 11, 2018 at 10:12pm PST

 

ছবিটি পোস্ট করার মুহূর্তের মধ্যেই সেটি ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। পোস্টের উত্তরে অনেক ভাল প্রতিক্রিয়া মিললেও কটাক্ষের শিকার হতে হয়েছে অভিনেত্রীকে। কেউ কেউ তাকে শ্বশুর বাড়ি ফিরে যেতে বলেছেন, আবার কেউ তাকে ধূমপান বন্ধ করতে বলেছেন। কারণ সিগারেটের ধোয়াতেও দূষণ ছড়ায়।আর তিনি যেভাবে সিগারেট খান তাতেও দূষণ ছড়ায়। কেউ কেউ আবার তার স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেও ধূমপান থেকে বিরত থাকতে বলেছেন। কিছুদিন আগেই স্বামী নিক জোনাসের সঙ্গে মায়ামীতে ছুটি কাটাতে গিয়ে তার ধূমপানের ছবি ভাইরাল হয়েছিল। তখনও সমালোচকদের রোষের মুখে পড়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা। কেউ কেউ আবার সেই কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন। এই কটাক্ষের পাল্টা কোনও জবাব দেননি প্রিয়ঙ্কা।