বর্তমান পরিস্থিতিতে সকলেই গৃহবন্দি। আর গৃহবন্দি দশায় সময় কাটাতে সকলেই নিজের মতোন বিনোদনের রসদ খুঁজে নিচ্ছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় তারকাদের থ্রো-ব্যাক ভিডিও আজকাল খুবই ভাইরাল হচ্ছে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় সেরকমই একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে বলি অভিনেত্রী প্রিয়ঙ্কা চোপড়ার। সালটা ২০০৩। বিশ্বসুন্দরীর মুকুট  উঠেছিল প্রিয়ঙ্কার মাথায়। তারপরেই বলিউডে পা রাখেন প্রিয়ঙ্কা। 

আরও পড়ুন-ফাটা অন্তর্বাসেই বিছানায় উষ্ণতা, অভিনয়কেও ছাপিয়ে গেছে দিশার 'হট মুভস'...

বলিউডে পা রেখেই  অক্ষয় কুমারের বিপরীতে 'আন্দাজ' ছবি দিয়ে বি-টাউনে পা রাখেন প্রিয়ঙ্কা।  সেই সিনেমার শুটিং চলাকালীন সকলের সামনেই চূড়ান্ত অপমানিত হতে হয়েছিল প্রিয়ঙ্কাকে। পিগি চপসের সেই থ্রো-ব্যাক ভিডিও নেটদুনিয়ায় ভাইরাল। দেখে নিন ভিডিওটি।

 

 

আরও পড়ুন-মুখোশের আড়ালে দীপিকা, নয়া স্টাইলেই ভোলবদল অভিনেত্রীর...

ভিডিওটিতে দেখা গেছে,  প্রিয়ঙ্কা 'আন্দাজ' ছবির একটি গানের জন্য রিহার্সাল করছিলেন। ছবির শুটিং চলছিল দক্ষিণ আফ্রিকায়। কোরিওগ্রাফার সরোজ খানের ছেলে রাজু খান সেই রিহার্সাল করাচ্ছিলেন। একের পর একবার রিহার্সাল করেই যাচ্ছিলেন প্রিয়ঙ্কা। প্রায় ৪০ বার রিহার্সাল করেও সঠিক শট দিতে পারেননি পিসি। এর পরই প্রিয়ঙ্কার উপর ক্ষেপে যান রাজু। তারপর মাইক নিয়ে সোজা মাটিতে ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। তারপরই তাকে আক্রমণ করেন রাজু। তিনি সকলের সামনেই প্রিয়ঙ্কাকে বলেন, 'বিশ্বসুন্দরী হলেই অভিনেত্রী হওয়া যায় না'। সেই মুহূর্তেই অক্ষয় কুমারের ফোন আসে। সদ্যই বাবা হয়েছেন অভিনেতা। সেই সুখবরই সেদিন অপমানের হাত থেকে রক্ষা করেছিল প্রিয়ঙ্কাকে। তারপর একটু সময় নিয়ে নিজেকে তৈরি করে সেটে ফিরেছিলেন প্রিয়ঙ্কা।