রাধিকা আপ্তে এই মুহূর্তে বলিউড-এ একটি পরিচিত নাম। মশালাদার নাচা-গানার ছবি নয় অন্য ধারার ছবি-তে নিজেকে অন্যতম প্রধান অভিনেত্রী হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে ফেলেছেন তিনি। সেই রাধিকা সম্প্রতি মুখ খুলেছেন। জানিয়েছেন, কীভাবে তাঁকে সেডাক্টিভ অভিনেত্রী হিসাবে প্রমাণ করার একটা জোরদার চেষ্টা হয়েছিল। রাধিকার কথায়, অভিনয়ের খাতিরে যে কোনও ধরনের চরিত্র করতে তিনি তৈরি। কিন্তু, সেই চরিত্রের মধ্যে একটা বলিষ্ঠতা যেমন থাকবে তেমনি সেই চরিত্র কোন বার্তা সমাজকে দিতে চাইছে সেটাও স্পষ্ট হওয়া দরকার। 

আরও পড়ুন- সাহসী অভিনেত্রী থেকে পরিচালক, নয়া অবতারে রাধিকা

বলিউডের এই প্রতিভাবান অভিনেত্রী জানিয়েছেন, বদলাপুর-এর তাঁর চরিত্র সকলের প্রশংসা কুড়িয়েছিল। বিশেষ করে যে সাবলিলতায় এবং সহজভাবে একটি দৃশ্যে জামা-কাপড় খুলে ফেলেছিলেন তাতে চলচ্চিত্র সমালোচকরা প্রশংসা করেছিলেন। তিনি জানিয়েছেন, 'বদলাপুরের এই দৃশ্যে দেখা গিয়েছিল একজনের নির্দেশে আমি জামা কাপড় খুলে ফেলে নগ্ন হচ্ছি। বলতে গেলে ওই ব্যক্তি আমাকে জামা-কাপড় খুলে ফেলতে বাধ্য করেছিল। দৃশ্যে এমন ইঙ্গিত ছিল যেন ওই ব্যক্তি আমাকে ধর্ষণ করতে চাইছে। এই চরিত্রের পর থেকেই আমার কাছে একের পর এক অফার আসতে থাকে। সকলেই আমাকে দিয়ে এমনটি একটি উত্তেজক দৃশ্যে অভিনয় করার প্রস্তাবও দেন। তাদের মনে হয়েছিল আমি একজন সেডাক্টিভ অভিনেত্রী হিসাবে সফল হতে পারি। বদলাপুরের পরপর এসেছিল অহল্যা নামে একটি স্বল্পদৈর্ঘের ছবি। সেখানেও অনেকটা সেডাক্টিভ চরিত্র ছিল আমার। সুতরাং, সেডাক্টিভ চরিত্র নিয়ে কাউকে কিছু বলতে গেলেই তারা আমার সামনে বদলাপুর ও অহল্যা-র উদাহরণ টানতেন।' 

আরও পড়ুন- এমি অ্যাওয়ার্ডের মনোনয়নের দৌড়ে ভারতীয়রা, রাধিকা আপ্তে সহ ৪ জন

মহিলাদের নিয়ে একটি অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন রাধিকা। সেখানেই তিনি এই সব প্রসঙ্গে কথা বলেন। তিনি জানান, জীবনে প্রচুর সিনেমা-র অফার তাঁকে ছাড়তে হয়েছে। এটা তাঁর ফিল্মি কেরিয়ায়ের পক্ষে ভালো না খারাপ তা তিনি বিচার করেননি এবং এখনও বুঝতে পারেননি। তবে, এই সব চরিত্রে অভিনয় না করার সিদ্ধান্ত তিনি মন থেকেই নিয়েছিলেন বলে সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন। 

আরও পড়ুন- বড় পর্দা থেকে সোশ্যাল মিডিয়া, রাধিকা আপ্তের সাহসী উপস্থিতিতে মুদ্ধ দর্শক

রাধিকা জানিয়েছেন, তিনি সাহসী এবং প্রগতিশীল। মহিলাদেরকে কোনও নির্দিষ্ট ট্যাগে বা লেবেলে বাঁধতে চান না। কিন্তু, তারমানেই এই নয় যে কথায় কথায় পুরুষ বিদ্বেষের চরিত্রে অভিনয় করতে হবে। চিত্রনাট্য মেনে তিনি কাজ করতে চান। তাঁর পরিষ্কার কথা যে চরিত্রেই অভিনয় করি না কেন তার বার্তাটা পরিস্কার হতে হবে। তিনি পরিচালক ও চিত্রনাট্যকারের হিসেব অনুযায়ী কাজ করবেন। তবে তারমানে এই নয় যে তিনি পুরুষবিরোধী যে কোনও চরিত্র অভিনয় করবেন। 

রাধিকা এই মুহূর্তে বলিউডে একাধিক ছবিতে কাজ করছেন। সেইসঙ্গে কাজ করছেন বিভিন্ন ওয়েব সিরিজে। সামনে আরও কিছু ওয়েব সিরিজ তাঁর হাতে। তবে, রাধিকা একটা জায়গাতেই কঠোরভাবে শৃঙ্খলাপরায়ণ, যার জন্য অযৌক্তিক কোনও চরিত্রে তিনি অভিনয় করবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।