সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে স্বজনপোষণ যেন আর ভালভাবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। যত সময় এগোচ্ছে তার মৃত্যু নিয়ে  জট ক্রমশ গাঢ় হচ্ছে।   এমনকী সুশান্তের পরিবারের পক্ষ থেকেই তার মৃত্যুকে আত্মহত্যা নয় বলেই দাবি করেছেন। ঠিক কোন পরিস্থিতিতে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন সুশান্ত সেই কারণ খতিয়ে দেখতেই তদন্তে নেমেছে পুলিশ। একের পর এক অভিনেতারা তার মৃত্যু নিয়ে সরব হচ্ছেন সোশ্য়াল মিডিয়ায়। সম্প্রতি সুশান্ত  সিং রাজপুতের মৃত্য নিয়ে গর্জে উঠেছেন মহাভারতের দ্রৌপদী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়।

 

 

সুশান্তের মৃত্যুর সিবিআই তদন্ত নিয়ে এবার দাবি করেছেন অভিনেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। নিজের টুইটারে অভিনেত্রী রূপা জানিয়েছেন, অভিনেতার মৃত্যুর তদন্তভার কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হোক। দেখে নিন রূপার টুইটি।

 

সত্যিই কি মানসিক চাপ থেকেই  আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পনা মাফিক খুন? এই নিয়ে সকলের মনে দানা বেঁধেছে  হাজারো রহস্য। সুশান্তের মৃত্যুর খবরে উত্তাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। এখনও পর্যন্ত সুশান্তের মৃত্যুর কোনও সুইসাইড নোডও উদ্ধার করা হয়নি , তাই এটি যে আত্মহত্যা তা-ই বা কী করে জানাল পুলিশ, এই প্রশ্নও তুলেছেন বিজেপি নেত্রী। পুলিশ যেন বড্ড বেশি তাড়াহুড়ো করছে তদন্তের স্বার্থে।

 

 

তবে শুধু রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ই নন,  বিজেপির মনোজ তিওয়ারিও সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। সুশান্তের প্রার্থনা সভায় হাজির হয়ে এই দাবি করেছিলেন মনোজ তিওয়ারি। সকলেই অভিনেতার প্রয়াণে শোকাহত। যদিও ইতিমধ্যেই পুলিশি জেরা শুরু হয়ে গেছে। সুশান্তের বান্ধবী রিয়াকে আগে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ। এবং সূত্র থেকে জানা গেছে আবারও ডাকা হতে পারে সুশান্তকে। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে ভারতীয় সিনেমা অপূরণীয় ক্ষতি। একজন প্রতিভাবান অভিনেতাকে হারাল বলিউড। তার সহজ সরল অভিনয় থেকে, মিষ্টি হাসি মনে দাগ কাটেনি এমন মানুষের সংখ্যা প্রায় হাতে গোনা। কিন্তু ১৪ জুন বলিউডের সেই কালো দিন। কোনও কিছু বোধগম্য হওয়ার আগেই যেন সবটা শেষ হয়ে গেল। শুধু কেন? এই প্রশ্নটাই যেন মুখ থেকে সড়ছে না তার মৃত্যুর এতদিন পরই।