পাঁচ দিনেই এই ছবি বক্স অফইসে আয় করেছে ৩৫০ কোটি টাকা। মুক্তির পর থেকেই সাহো জ্বরে কাবু সকলেই। কিন্তু এরই মাঝে একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে চলেছে সাহো ছবি। ছবি মুক্তির পরের দিনই পোস্টার ঘিরে তৈরি হয় বিতর্ক। কেবল ছবিই নয়, টোকা হয়েছে গল্পও। একের পর এক অভিযোগ উঠে আসতে দেখা যায় সাহো ছবিকে ঘিরে। 

আরও পড়ুনঃ কুলি নং ওয়ান-র সেটে নয়া চমক, প্লাস্টিকমুক্তি সেট তৈরি করে নজর কাড়ল টিম 

এবার কবীর সিং-এর পথে হাঁটলেন সাহো-র মূল চরিত্র অশোক চক্রবর্তী। মেয়েদের সন্মান না দেওয়া, জীবনযাপনের ধরণ নিয়ে কবীর সিং-কে বহুবার পড়তে হয়েছে প্রশ্নে মুখে। এবার সেই একই ধাঁচে শিকার হল সাহো। ছবিতে বেশ কিছু অংশে দেখানো হয়েছে অশোক চক্রবর্তী মেয়েদের সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে সুব্যবহার করেন না। সঙ্গে সেখানে এও দেখানো হয় যে মেয়েদের যত্রতত্র স্পর্শ করা, তাঁদের অসন্মান করা হয়েছে। যা থেকে নেটিজেনদের একশ্রেণি প্রশ্ন তোলে এই ভাবে ছবির মাধ্যমে কর্মক্ষেত্রে মেয়েদের অসন্মান করা প্রমোট করা হয়েছে।

কয়েকদিন আগেই একইভাবে অভিযোগের শিকার হতে হয় কবীর সিং-কে। সেই ছবিতে দেখা গিয়েছিল মদ্যপ অবস্থায় অস্ত্রপচার করা, গার্লফ্রেন্ডকে রাস্তার মধ্যে মারা, একাধিক নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া প্রভৃতি। যা থেকে রীতিমত বিক্ষোপ দেখিয়েছিলেন সকলে। 

আরও পড়ুনঃ বলিউডের সেরা দশ আইটেম ডান্সার, যাদের পারিশ্রমিক জানলে অবাক হবেন

সাহো ছবির বেশ কিছু দৃশ্য নিয়ে এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হলেন অনেকেই। ছবির মাধ্যমে মেয়েদের এইভাবে কর্মক্ষেত্রে অসন্মান করার দৃশ্য ছবির মধ্যে তুলে ধরায় তা উষ্কে দিতে পারে এই ধরনের সমস্যাকে। একদিকে যখন সমাজে মিটু আন্দোলন নিয়ে কথা বলা হচ্ছে, তখনই পাশাপাশি দেখানো হচ্ছে এই ধরনের ছবি। যা সমাজের দৃষ্টিভঙ্গীর ওপর প্রভাব ফেলতে পারে।