সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু এক কথায় মানতে নারাজ গোটা দেশ। রাগে, ক্ষোভে ফেটে পড়ছে নেট দুনিয়া। ঠিক কী কারণে এই পথ বাঁছতে হল সুশান্তকে। কেন বলিউড নিয়ে তাঁর মনে একাধিক প্রশ্ন দেখা দিত! হাজার এক অভিযোগ, অনুযোগ এক সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় ভাইরাল। তারকার মৃত্যু ঘিরে টানা দুদিন ধরে তরজা নেট-পাড়ায়। নেপোটিজম থেকে শুরু করে পুরষ্কার বিতরণী, বক্স অফিস, একের পর এক বিষয় নিয়ে সরব হচ্ছেন ভক্তরা। 

 

 

একাধিক ছবিতে নিজের সেরাটা দিয়েছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। কিন্তু তিনি নিজেই স্বীকার করেছিলেন, তাঁর ছিল না কোনও গড ফাদারই, ফলে দর্শকেরাই তাঁকে ধরে রাখতে পারেন, নয়তো বলিউড তাঁকে ঝুঁড়ে ফেলে দেবে। 

 

বলিউডে কিছু শ্রেণীর মানুষের চলছে একচেটিয়া রাজত্ব, কাপুর পরিবার থেকে শুরু করে খান, জোহারের দিকে একাধিক অভিযোগের আঙুল। ক্ষুব্ধ নেট-দুনিয়া কাঠগোড়ায় দাঁড় করাল সলমন খানকে। প্রকাশ্যে বুলিং থেকে শুরু করে মানুষকে সুযোগ করে না দেওয়া, একাধিক বিষয় নিয়ে সলমন খানকে বয়কটের ডাকও তুললেন অনেকে। সুশান্ত সিং রাজপুত ছিলেরন খুব ভালো মনের মানুষ। কেন পেলেন না তাঁর যোগ্য সন্মান, কেন মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লেন অভিনেতা! 

 

আরও পড়ুনঃ এক যোগে সাত প্রযোজনা সংস্থা বাতিল করেছিল সুশান্তকে, চারমাস আগেই দেওয়ালে ঠেকেছিল পিঠ

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় সুশান্তের মৃত্যুর দুদিনের মাথায় টার্গেট সলমন খান। একাধিক ট্রোল ঘিরে নেট দুনিয়া এখন তোলপাড়। পাশাপাশি সলমন খান ভক্তরাও নেমে পড়লেন মাঠে। জানালেন, সলমন ও সুশান্ত ভালো বন্ধু ছিলেন, তাই সলমনকে টার্গেট করা বন্ধ হোক। কিন্তু নেট দুনিয়া এক কথায় ছাড়তে নারাজ।

 

 

কেন বয়কট করা হয়েছিল সুশান্তকে! প্রশ্ন এখন সলমন খানের সামনে।  সলমন খানের মদতে যেমন একাধিক তারকা বলিউডে জায়গা করে নিয়েছে, ঠিক তেমনই তাঁর হস্তক্ষেপেই অনেকে বলিউডকে বিদায় জানিয়েছেন বলে দাবী নেটদুনিয়ার একাংশের। আর সেই সূত্রেই বয়কট সলমন খান এখন ট্রেন্ড।