মুক্তি পেল সুজিত সরকারের আগামী ছবি 'গুলাবো সিতাবো'র ট্রেলার। ট্রেলার জুড়ে অমিতাভ-আয়ুষ্মানের এক ভিন্ন রসায়নে মুগ্ধ একাধিক দর্শক। তবে কিছু সংখ্যক ফিল্মবাফদের তেমন মনে ধরল না ট্রেলারের অংশ। তাদের অভিযোগ, এমন দুই তাবড় অভিনেতাকে নেওয়ার আগে স্টোরিলাইন ঠিক করে তৈরি করা উচিত ছিল সুজিত সরকারের।  অমিতাভের মেকআপও তাদের অত্যন্ত মেকি লেগেছে। অন্যদিকে সুজিতের সাধারণ গল্পেই অসাধারণ কিছু খুঁজে পেয়েছে দর্শকরা। 

তাদের কথায়, সুজিতের ছবি সাধারণ গল্প দিয়েই শুরু হয়, সেখান থেকেই মানুষ রিলেট করতে পারে, তারপর ছবিটি ছাপ ফেলে যায় সকলের মনে। এমনই ছিল দীপিকা-অমিতাভের পিকু। প্রসঙ্গত, রণবীর সিংয়ের '৮৩' মুক্তি পাবে না ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে। পরিচালক কবীর খানের তরফ থেকে ট্যুইট করে জানিয়ে দিয়েছেন তরন আদর্শ। একজন পরিচালক যখন ডিজিটাল দুনিয়ার সঙ্গে হাত মেলাতে রাজি নন, সেদিকে সুজিত সরকার নিজের আগামী ছবি 'গুলাবো সিতাবো' ডিজিটালে মুক্তি পেলে তাঁর কোনও আপত্তি নেই। 

লকডাউনে ডিজিটালের দিকে ঝুকেছেন বিনোদন জগৎ। অনুষ্কা শর্মার ওয়েব সিরিজ পাতাল লোক ইতিমধ্যেই প্রশংসা কুড়োচ্ছে। অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওতে স্ট্রিমিং হয়ে গিয়েছে সিজন ওয়ান। সুজিত সরকার জানিয়েছেন, আয়ুষ্মান খুরানা এবং অমিতাভ বচ্চন অভিনীত 'গুলাবো সিতাবো' তিনি প্রয়োজনে অনলাইনেই মুক্তি করাবেন। নেটিজেনের দাবি, সুজিত এই কথার মাধ্যমে কবীর খানকে পরোক্ষভাবে আক্রমণ করেছেন। আগামী মাসের ১২ তারিখ অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওতে মুক্তি পাবে ছবিটি।