করোনা আতঙ্কের মাঝেও দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম্য অব্যাহত। ফের শুটআউট আসানসোলে। চিত্তরঞ্জন এলাকায় রাস্তায় মিলল ঠিকাদারের গুলিবিদ্ধ দেহ। ঘটনার তদন্তের নেমেছে পুলিশ। প্রশ্নের মুখে রেলশহরের নিরাপত্তা।

আরও পড়ুন: মুর্শিদাবাদে করোনা সংক্রমণের শিকার তৃণমূল বিধায়ক, চিকিৎসার জন্য আনা হল কলকাতায়

মৃতের নাম বলরাম সিং। আসানসোলের চিত্তরঞ্জন এলাকারই বাসিন্দা ছিলেন তিনি। রেলের ঠিকাদার হিসেবে কাজ করতেন বলরাম। অত্যন্ত সজ্জন ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত ছিলেন এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, দিন কয়েক আগে বাবা সুস্থ করে তোলার জন্য লিভার দান করেন বলরাম। শুক্রবার বিকেলে কারখানার ওয়ার্কশপ থেকে জিএম অফিস যাওয়ার পথে তাঁর গুলিবিদ্ধ দেহটি উদ্ধার হয়।  মৃতদেহের পাশে পড়েছিল হলুদ রঙের একটি স্কুটি।  মাথায় ও বুকে গুলির আঘাতের চিহ্ন ছিল। প্রাথমিক তদন্তের অনুমান, রাস্তায় গুলি করে খুন করা হয়েছে বলরাম সিং-কে। কিন্তু কেন? তা নিয়ে ধন্দে পুলিশ।

আরও পড়ুন: ভরদুপুরে থানার অদূরে শুটআউট, টোটোচালককে লক্ষ করে গুলি চালাল দুষ্কৃতীরা

উল্লেখ্য, করোনা আতঙ্কে এখন রেলশহর চিত্তরঞ্জনে বহিরাগতদের প্রবেশ নিষেধ। এমনকী, শহরে ঢুকে দেওয়া হচ্ছে না সাধারণ দুধ বিক্রেতা ও সবজি বিক্রেতাদেরও। এরইমধ্যে বৃহস্পতিবার রাতে ঝাড়খণ্ডের দুষ্কৃতীরা এক যুবতীকে অপহরণের চেষ্টা করেন। সেই ঘটনার কয়েক ঘণ্টার পরই খুন হয়ে গেলেন রেলের ঠিকাদার। ফলে এলাকা নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।