ব্যবধান মাত্র কয়েক দিনের। ফের করোনায় সংক্রমণের শিকার হলেন রাজ্যের এক তৃণমূল বিধায়ক। এবার আক্রান্তের তালিকায় নাম উঠল মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জের বিধায়ক আখরুজ্জামানের। চিকিৎসার জন্য তাঁকে আনা হয়েছে কলকাতায়। সঙ্গে এসেছেন পরিবারের সদস্যরাও।

আরও পড়ুন: ফের রেকর্ড গড়ে বাংলায় একদিনে আক্রান্ত ১৮৯৪, কলকাতার পরেই সংক্রমণে দ্বিতীয় উত্তর ২৪ পরগনা

জানা গিয়েছে, জ্বর, সর্দি-সহ করোনা একাধিক উপসর্গ ছিল। রবিবার থেকে অসুস্থ ছিলেন রঘুনাথগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক।  তবে দেরি করেননি, দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন তিনি। স্রেফ করোনা নয়, ডেঙ্গু, টাইফয়েড ও ম্যালেরিয়ার পরীক্ষাও করানো হয় জঙ্গিপুর মহকুমা  হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর পুর ও নগরোয়ন্ননমন্ত্রী ববি হাকিমের সঙ্গে যোগাযোগ করেন মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। তাঁর তৎপরতায় বিধায়ক আখরুজ্জামান, তাঁর স্ত্রী, ছেলে-সহ পরিবারের সদস্যকে কলকাতা নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা হয়। পরিবারের সদস্যদের নমুনাও পরীক্ষার জন্য় পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ আবু তাহের খান বলেন,  'আমাদের বিধায়ক কয়েকদিন ধরে এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বিভিন্ন গ্রামের প্রত্যন্ত এলাকায় যাতায়াত করেছেন। সেখান থেকে হয়তো কোনও ভাবে সংক্রমিত হয়েছেন তিনি। আমরা তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।'

আরও পড়ুন: ছড়াচ্ছে করোনা সংক্রমণ, লকডাউন মানতে নারাজ স্থানীয়েরা, ভয়াবহ ছবি ডানকুনিতে

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে করোনা আক্রান্ত হন দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জের বিধায়ক তোরাফ হোসেন মণ্ডল। আপাতত তিনি রয়েছেন বালুরঘাটের সেফ হোমে। বস্তুত, কলকাতা করোনা সংক্রমণে মারাও গিয়েছে ফলতার বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ।