ফের করোনার ছোবল বর্ধমানে। এবার সংক্রমণ ধরা পড়ল নার্সের। আক্রান্তের চিকিৎসা চলছে দূর্গাপুরের কোভিড হাসপাতালে। পরিবারের লোক-সহ ৯ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়ে দিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর।

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে 'সামাজিক বয়কট', বিপাকে সরকারি হাসপাতালের কর্মীরা

করোনা আক্রান্ত ওই নার্স চাকরি করেন সরকারি হাসপাতালে। কর্মসূত্রে কলকাতায় থাকেন তিনি। স্বামী বিদ্যুৎ দপ্তরের  কর্মী। জানা গিয়েছে, দিন তিনেক আগে ছুটি কাটাতে কলকাতা থেকে বর্ধমানে চলে আসেন ওই নার্স। নিজেই স্বাস্থ্য পরীক্ষার করানোর জন্য যান হাসপাতালে। করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে সোমবার। এরপর আক্রান্তকে দুর্গাপুরের কোভিড হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

করোনা আক্রান্তের স্বামী বর্ধমান শহরের বাদামতলা এলাকায় বিদ্যুৎ দপ্তরের অফিসে কর্মরত। সেই অফিসটি সিল করে দিয়েছে প্রশাসন। জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানিয়েছেন, বিদ্যুৎ দপ্তরের গাড়ি ব্য়বহার করেছেন, এমন চারজনের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। তাঁদেরকেও পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে। আর কেউ কি গাড়িটি চড়েছেন কিংবা আক্রান্তের স্বামীর সংস্পর্শে এসেছেন? সন্ধান চালাচ্ছে প্রশাসন। 

আরও পড়ুন: রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ১৩৪৪, মৃত ৬৮

আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণের জের, এবার বন্ধ পিয়ারলেস হাসপাতাল
 

লকডাউনের মাঝে কলকাতায় কর্মরত নার্স কীভাবে চলে এলেন বর্ধমানে? প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। এ বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি প্রশাসনিক আধিকারিকরা। শোনা যাচ্ছে, সড়ক পথে গাড়ি ভাড়া করে এসেছেন তিনি।  এর আগে  এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে করোনায় আক্রান্ত হন এক ব্যক্তি।  তাঁকে ভর্তি করা হয় পানাগড়ের কোভিড হাসপাতালে। চিকিৎসায় সেরে উঠেছেন তিনি।