এবার সংক্রমণের জেরে আপাতত বন্ধ করে দেওয়া হল পিয়ারলেস হাসপাতাল। আগামীকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে এই হাসপাতাল। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে,চালু থাকবে ডায়ালিসিস, প্রসূতি সংক্রান্ত বিভাগ। চালু থাকবে পিয়ারলেসের কেমোথেরাপি বিভাগ অন্যান্য বিভাগে রোগী ভর্তি বন্ধ, বন্ধ আউটডোর আপাতত বন্ধ থাকছে পিয়ারলেসের জরুরি বিভাগ। ইতিমধ্য়েইে এই বিষয়ে অবগত করা হয়েছে স্বাস্থ্য় দফতরকে। 

রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে,মমতাকে ফের চিঠি রাজ্যপালের

সূত্রের খবর, পিয়াসলেসে করোনা চিকিৎসার জন্য় ৮টি বেড রয়েছে। সেখানে এখন সব মিলিয়ে করোনা রোগীর সংখ্যা ২০। বাইরের রোগীর থেকে খোদ হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য় কর্মীরাই করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। যার জেরে কোয়ারান্টাইনে পাঠানো হয়েছে কিছুজনকে। এমনকী কারা ওই সংক্রমিতদের সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদেরও তালিকা বানানো হচ্ছে।

রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে,মমতাকে ফের চিঠি রাজ্যপালের.

জানা গিয়েছে, কোভিড বিভাগের ২০ জনের মধ্য়ে হাসপতালেরই ১০ জন চিকিৎসক ,স্বাস্থ্য়কর্মী ভর্তি  রয়েছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, সংক্রমিতদের থেকে নতুন করে হাসপাতালে কোভিড১৯ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। তাই গোটা হাসপাতালকেই সুরক্ষিত করতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নতুন করে হাসপাতাল স্যানিটাইজ করারা পরেই খোলা হবে বিভিন্ন ওয়ার্ড। 

বাংলা ওপরে সবুজ-ভিতরে লাল, করোনা নিয়ে এবার মুখ্য়মন্ত্রীকে চিঠি দিলীপ ঘোষের...

তবে একা পিয়ারলেস নয়। এর আগে করোনা সংক্রমণের জেরে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল চার্নক হাসপাতাল। কলকাতা মেডিক্য়াল কলেজের একাংশ। জানা গিয়েছে, নতুন করে পিয়ারলেস হাসপাতালে দুই চিকিৎসক  করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরই আরা ঝুঁকি নিতে চায়নি কর্তৃপক্ষ।