অভিনেত্রী হতে চেয়েছিলেন তিনি, কিন্তু পছন্দমতো কাজ পাচ্ছিলেন না। মানসিক অবসাদে শেষপর্যন্ত  আত্মহত্যা করলেন এক তরুণী। বাড়ি থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করল পুলিশ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বর্ধমান শহরে।

মৃতার নাম সুবর্ণা যশ। বাড়ি, বর্ধমান শহরের মোহনবাগ এলাকায়। বর্ধমানের বিদ্যার্থী ভবন গার্লস স্কুলের ছাত্রী ছিলেন বছর তেইশের ওই তরুণী। তাঁর বাবা স্থানীয় একটি নার্সিংহোমের ম্যানেজার। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, স্কুলের পাঠ চুকিয়ে সাংবাদিকতা নিয়ে পড়াশুনা করতে কলকাতায় চলে যান সুর্বণা। কিন্তু কোর্সটি আর শেষ করেননি, কলেজে পড়তেই পড়তেই অভিনয় ও মডেলিং করতে শুরু করেন তিনি। বেশ কয়েকটি সিরিয়ালে ছোট চরিত্রে অভিনয়ও করেছেন ওই তরুণী।  কিন্তু পছন্দ মতো কাজ না পাওয়ার মানসিক অবসাদ গ্রাস করেছিল সুবর্ণাকে। তেমনই দাবি করেছেন বাড়ির লোকেরা। মানসিকভাবে এতটাই ভেঙে পড়েছিলেন যে, মেয়েকে কলকাতা থেকে বর্ধমানে নিজেদের কাছে নিয়ে চলে আসেন সুবর্ণার পরিবারের লোকেরা। চলছিল চিকিৎসাও। কিন্তু তাতেও শেষরক্ষা হল না। 

আরও পড়ুন: মেদিনীপুরকাণ্ডে নয়া মোড়, নাতি পেতেই শিশু চুরি অভিযুক্ত মহিলার

জানা গিয়েছে, রবিরার রাতে মেয়েকে সঙ্গে নিয়েই শুয়েছিলেন সুবর্ণার মা। গভীর রাতে যখন ঘুম ভাঙে, তখন দেখেন, গলায় ওড়নার ফাঁস দিয়ে ঝুলছেন ওই তরুণী! হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।  ঘটনার শোকের ছায়া নেমেছে এলাকায়।