পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান- নিকাশি নালা সংস্কারের কাজ চলার সময় একশো দিনের শ্রমিককে কাঠারির কোপ যুবকের। প্রতিবাদে অভিযুক্তকে ধরে বেধড়ক গণপিটুনি দেয় গ্রামবাসীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত্যু হয় যুবকের। এরপরই যুবকের মৃত্য ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। নিহত যুবক তাঁদের কর্মী ছিল বলে দাবি করছে বিজেপির। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কালনার পালপাড়ায়। 

জানাগেছে, পালপাড়া এলাকায় একশো দিনের প্রকল্পে নিকাশি নালা সংস্কারের কাজ চলছিল।গাছের ডালকাটা নিয়ে একশো দিনের শ্রমিকের সঙ্গে বচসা বাঁধে রবীন পাল নামে ওই যুবকের। বচসা চলাকালীন শ্রমিকের হাতে কাঠারির কোপ দেয় রবীন পাল। এরই প্রতিবাদে রবীনকে ধরে বেধড়ক গণপিটুনি দেয় গ্রামবাসীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

হাসপাতালের বেডে শুয়ে রবীন সাংবাদিকদের বলে, তাঁর জায়গার উপর দিয়ে নিকাশি নালা তৈরি করছে পঞ্চায়েত। তা নিয়ে আদালতে মামলাও চলছে। নিকাশি নালা তৈরির প্রতিবাদ করায় গ্রামবাসীরা তাকে গণপিটুনি দেয় বলে দাবি করে রবীন।

রবীনের এই দাবি প্রকাশ্য়ে আসতেই রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়ে যায় ওই এলাকায়। বিজেপি নেতা সুশান্ত পাণ্ডে দাবি, পরিকল্পনা করে তাঁদের সক্রিয় কর্মীকে খুন করেছে তৃণমূল। এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অন্যদিকে, তৃণমূলের দাবি, নিহত ব্যক্তি কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত নয়, একশোর দিনের শ্রমিক তৃণমূল কর্মী বাদল পাত্রকে কোপ মারে। এরই প্রতিবাদে গ্রামবাসীরা রবীনকে মারধর করে বলে পালটা দাবি তৃণমূলের।