পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান:  কিশোরীকে ধর্ষণ ও খুনের চেষ্টার মামলায় দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। বর্ধমানের চেন কিলার কামরুজ্জামান সরকারকে মৃত্যুদণ্ড দিলেন কালনা মহকুমা আদালতের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা বিচারপতি।

আরও পড়ুন: আমফান ত্রাণের ত্রিপল দেওয়ার নামে গৃহবধূকে 'ধর্ষণ', অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা

ঘটনার সূত্রপাত গত বছরের ৩০ মে। সেদিন কালনার সিঙ্গেরকোণ গ্রামের বাড়িতে একাই ছিল এক কিশোরী। সেই সুযোগে তাকে ধর্ষণ ও খুন করে কামরুজ্জামান। ওই কিশোরীর মা যখন বাড়িতে ফেরেন, তখন ঘরে মেয়েকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। তড়িঘড়ি তাকে ভর্তি করা হয় কালনা মহকুমা হাসপাতালে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। কয়েক দিন পর হাসপাতালে চিকিৎসা চলাকালীন মারা যায় ওই কিশোরী। সেই মামলাতেই সোমবার কামরুজ্জামানকে সরকারকে মৃত্যুদণ্ড দিল আদালত। 

আরও পড়ুন: অপেক্ষার প্রহর শেষ, মরশুমে প্রথম ইলিশ উঠল দিঘায়

এদিকে এই মামলার তদন্তে আবার উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুলিশ জানিয়েছে, কোনও বাড়িতে পরিবারের মহিলা সদস্য একা থাকলে, সেই বাড়িতে টার্গেট করত কামরুজ্জামান। বিদ্যুত দপ্তরের কর্মী পরিচয় দিয়ে সটান ঢুকে পড়ত বাড়িতে। তারপর সুযোগ বুঝে গলায় চেন পেঁচিয়ে মহিলাদের খুন করত সে। মৃত্যুর পর মহিলার সঙ্গে যৌনতা মেতে উঠত কামরুজ্জামান। তাই চেন কিলার নামে পরিচিত হয়ে উঠেছিল বিকৃতকাম ওই যুবক।