পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান: প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখানের  জের? পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া কলেজে এবার 'মানসিক অত্যাচার ও যৌন হয়রানি'র শিকার হলেন অধ্যাপিকা। অভিযুক্ত কলেজের প্রাণীবিদ্যার বিভাগের প্রধান নির্ভীক বন্দ্যোপাধ্যায়। অধ্যক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই অধ্যাপিকার মা।

আরও পড়ুন: অভাবের সংসারে পড়াশুনা বন্ধ হয়ে যাচ্ছিল ছাত্রীর, সাহায্য় করলেন 'দেবদূত' দীপক অধিকারী

অধ্যক্ষের কাছে ঠিক কী অভিযোগ জমা পড়েছে? এগারো পাতার চিঠিতে প্রাণীবিদ্যা বিভাগের ওই অধ্যাপিকার মা জানিয়েছেন, বহুদিন আগে তাঁর মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দেন বিভাগীয় প্রধান নির্ভীক বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তাতে রাজি হননি ওই অধ্যাপিকা। তারপর থেকে সমস্যার শুরু হয়। কী রকম? ওই অধ্যাপিকার উপর মানসিক অত্যাচার, এমনকী যৌন হয়রানি তো চলতই। যে সকল পড়ুয়ার সঙ্গে ওই অধ্যাপিকার ভালো সম্পর্ক ছিল, ইচ্ছাকৃতভাবে তাঁদের নম্বরও কমিয়ে দিতেন কাটোয়া কলেজের প্রাণীবিদ্যায় বিভাগের প্রধান! ওই পড়ুয়াদের সম্পর্কে অশালীন মন্তব্যও করতেন তিনি। অভিযোগকারী অধ্যাপিকার দাবি, সিসিটিভি ফুটেজ দেখলে সমস্ত অভিযোগের প্রমাণ মিলবে। এমনকী, তাঁর কাছে কিছু ভিডিও ক্লিপ রয়েছে। গোটা ঘটনা জানার পর তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন অধ্যক্ষ।

আরও পড়ুন: ঘর থেকে বেরোলেই শিয়ালের কামড়, গ্রাম জুড়ে আতঙ্ক, হাসপাতালে ভর্তি শিশু সহ ৩০ জন

কী বলছেন অভিযুক্ত নির্ভীক বন্দ্যোপাধ্যায়? অভিযোগকারী অধ্যাপিকা, প্রাণীবিদ্যা বিভাগেরই আরও এক অধ্যাপক, প্রাণীবিদ্যা বিভাগের প্রাক্তন প্রধান, এমনকী অভিযোগকারীর বাবার দিকেই অভিযোগ আঙুল তুলেছেন তিনি। এর আগেও প্রাণীবিদ্যার বিভাগে প্রধানের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেছিলেন কাটোয়া কলেজেরই এক ছাত্রী।