পত্রলেখা চন্দ্র বসু, বর্ধমান-পঞ্চায়েতের সদস্য। পেশায় দিনমজুর। তাঁর নয় বছরের ছেলেকে অপহরণ করে সাত লক্ষ টাকা মুত্তিপণ দাবি করল দুষ্কৃতীরা। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। একজন দিনমজুরের ছেলেকে অপহরণ করে এতটাকা মুক্তিপণ দাবি করায় ঘণীভূত হচ্ছে রহস্য। 

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন, মোদিকে ক্ষীরের তৈরি শ্রীরাম মূর্তি উপহার বিজেপির

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে। জানাগেছে, বুধবার বিকেল পাঁচটার পর থেকে খোঁজ মিলছে না নয় বছরের সন্দীর দোলুইয়ের। পরিবারের লোকেরা সম্ভাব্য জায়গায় খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। কিন্তু কোথাও তাঁদের নয় বছরের ছেলেকে খুঁজে পাননি। এই অবস্থায় সন্ধের সময় বাড়িতে ফোন করে এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি। তাঁদের ছেলেকে তারা অপহরণ করেছে বলে দাবি করে। ছেলের জন্য মুক্তিপণ দাবি করা হয় সাত লক্ষ টাকা। এরপরই, ফোনে ওই দুষ্কৃতীদের কাকুতি মিনতি করেন মা। তখন মুক্তিপণ সাত লক্ষ টাকা থেকে কমিয়ে তিন লক্ষ টাকা দাবি করে। শুধু তাই নয়, পুলিশ বা অন্য কাউকে ছেলের অপহরণের বিষয়টি জানালে খুন করার হুমকি দেয়।

আরও পড়ুন-করোনার থাবা, জাঁকজমকহীন পুরুলিয়া লোক সংস্কৃতীর ঐতিহ্যবাহী ভাদু পুজো

ঘটনার জেরে দিশেহারা অবস্থা পরিবারের। দিনমজুর বাবার কাছে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা কোথা থেকে মিলবে তা নিয়ে ধোঁয়াশায় রয়েছেন তাঁরা। সন্দীপ দুলুই অপহৃত  তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। বাবা বুদ্ধদেব দুলুই আগে তৃণমূলের পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য ছিলেন। বর্তমানে সাঁকো গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য তিনি। ঘটনার জেরে আতঙ্কের রেষ পরিবারে। শেষমেষ গলসি থানায় অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেছে পরিবার। তদন্ত শুরু করেছে গলসি থানার পুলিশ।