'শ্রীচরনেষু বাবা, গাড়ি সাবধানে চালাও। হেলমেট ব্যবহার করো।' এ ভাবেই স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা তাদের বাবাকে পোস্টকার্ডে চিঠি লিখল। এই পোস্ট কার্ড ডাক বিভাগের মাধ্যমে চলে যাবে যার যার বাড়ির ঠিকানায়। এ ভাবেই ট্রাফিক সচেতনতার  অভিনব উদ্যোগ নিল পূর্ব বর্ধমানের মেমারি থানা ও পাল্লা পল্লিমঙ্গল  সমিতি।

সন্তানদের দিয়ে চিঠি লিখিয়ে অভিভাবকদের ট্রাফিক আইন নিয়ে সচেতন করতেই এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। তবে গোটাটাই হলো প্রতিযোগিতার মাধ্যমে। স্থানীয় স্কুলের পড়ুয়ারাই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে তাঁদের বাবাদের পোস্টকার্ডে চিঠি লেখে। চিঠি লেখার বিষয় ছিল বাবা- মায়েদের ট্রাফিক নিয়ম নিয়ে সচেতন করা। ছাত্রছাত্রীদের লেখা চিঠির মধ্যে  থেকে ছ'টি চিঠিকে বেছে নেওয়া হয়। যে পড়ুয়ারা ওই চিঠি লেখে, তাদেরকে পুরস্কৃতও করা হয়। 

চিঠিতে নিজের বাবার উদ্দেশে পড়ুয়াদের কেউ কেউ গাড়ি চালানোর সময় মোবাইলে কথা বলে নিষেধ করেছে। কেউ আবার জোরে গাড়ি না চালানোর পরামর্শ দিয়েছে। দু' চাকার যান চালানোর সময় বাবারা যাতে হেলমেট পরে, তাও লেখা হয়েছে চিঠিতে। 

পড়ুয়াদের লেখা ওই চিঠিই পোস্ট অফিসের মাধ্যমে তাদের অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। পুলিশ কর্তা এবং স্থানীয় উদ্যোক্তাদের আশা, নিজেদের সন্তানদের থেকে ট্রাফিক সচেতনতার বার্তা পেলে অনেক অভিভাবকই ট্রাফিক আইন নিয়ে সচেতন হবে। জরিমানা-সহ আইন অনুযায়ী যাবতীয় শাস্তির ভয় অভিভাবকদের মধ্যে যে পরিবর্তন আনতে পারেনি, খুদে পড়ুয়াদের লেখা চিঠি তা করতে সক্ষম হবে বলেই আশাবাদী এই কর্মসূচির উদ্যোক্তারা।