পত্রলেখা বসু চন্দ্র: এলাকায় বহু মানুষের সরকারি আবাস যোজনার অনুদানের টাকা আটকে রয়েছে। অনেকেরই জবকার্ড বাতিল হয়ে গিয়েছে। তাই মানুষ বীতশ্রদ্ধ হয়ে পড়ছেন। দলের বুথস্তরের কর্মীদের কাছ থেকে প্রকাশ্য়ে এইসব নালিশ শুনতে হলে অনুব্রত মণ্ডলকে। তবে নারীর শুনে রেগে না গিয়ে তক্ষণাৎ ফোন করলেন বিডিওকে। প্রকাশ্য সভায় থেকেই তিনি ভিডিওকে জানালেন, যাতে রাস্তার কাজ দ্রুত হয় তা দেখতে। তবে সংবাদমাধ্যমের সামনে প্রকাশ্যে নিজের দলের কর্মীদের কাছ থেকে অভিযোগের ঘটনায় কিছুটা হলেও বিব্রত বোধ করেন অনুব্রত মণ্ডল।

ফের বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা, গাঙ্গুলি বাগানে কাঠগড়ায় তৃণমূল

রবিবার আউশগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে আউশগ্রাম ১ ব্লকের তিনটি অঞ্চলকে নিয়ে দলীয় বুথভিত্তিক কর্মী সম্মেলন ডাকা হয়ছিল। এদিন  দলীয় এক কর্মী মাইক্রোফোন হাতে সরাসরি সরকারি আবাস যোজনা ও জবকার্ড নিয়ে অভাব অভিযোগের কথা বলেন অনুব্রত মণ্ডলকে। অনুব্রত তাঁকে বলেন, বিডিওকে জানিয়েছো এ কথা ? কেন গরিব সাধারণ মানুষের সরকারি অনুদান আটকে থাকবে ? তারপর অনুব্রত নিজেই সরাসরি ফোন করেন আউশগ্রাম ১ বিডিওকে। 

'দিদির ছবি নেই দাদার পোস্টারে', অনুপ্রেরণা ছাড়াই এগোচ্ছেন শুভেন্দু.

আউশগ্রাম ১ ব্লকের বেরেণ্ডা, উক্তা এবং আউশগ্রাম এই তিন অঞ্চল নিয়ে বুথভিত্তিক কর্মীসম্মেলন ডাকা হয়েছিল। অনুব্রতর সঙ্গে এসেছিলেন রাজ্যের মৎসমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা। বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ অসিত মাল। এদিন এই সভাতেই কিছু এলাকা থেকে কর্মীদের ক্ষোভের কথা শুনতে হয় অনুব্রতকে। বেরেণ্ডা অঞ্চলের বেলুটি গ্রামে একটি বুথে গত লোকসভা ভোটে দলের পরাজয়ের কারণ জানতে চাইলে, এক কর্মী অভিযোগ তোলেন, বেশকিছু মানুষের সরকারি আবাস যোজনার অনুদান আটকে রয়েছে। বেশকিছু মানুষের জবকার্ড বাতিল হয়ে রয়েছে। বারবার প্রধান ও অঞ্চল সভাপতিকে বলেও কাজ হয়নি বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। 

"

দলের কিছু কর্মী বাড়ি বাড়ি শৌচাগার, পানীয় জলের ব‍্যবস্থা, এলাকায় সেতু নির্মাণ সহ গ্রামে পাকা মন্দির তৈরিরও দাবি জানিয়েছেন। অনুব্রত মণ্ডল সাংবাদিকদের বলেন, ২২০-২৩০ টা আসনে তৃণমূল রাজ‍্যে জয়লাভ করবে।