পুরোনা কয়েন জমানোর শখ অনেকেরই রয়েছে। পুরোনো কয়েন হোক বা টাকা তার মূল্যও অনেক। চড়া দামে বিক্রি হওয়া সেই কয়েন, টাকা, নানা ধাতব জিনিসও অনেকেই নিজের কাছে রেখে দেন। তবে শুধু কয়েনই নয়, পুরোনো নোটেরও দাম আছে বাজারে। লকডাউনের মধ্যেও অনেকেই পুরোনো টাকা,অ্যান্টিক পিস বিক্রি করছেন। তবে এখন আর আগের মতো নিলামে অ্যান্টিক জিনিস বিক্রির চল তেমন নেই। বরং এখন ইন্টারনেটেই বিক্রির চল রয়েছে। সেই পুরোনো কয়েন বিক্রি করেই আপনি হতে পারেন অনেক টাকার মালিক।

আপনারও কি এমন শখ রয়েছে তাহলেই সুবর্ণ সুযোগ। আপনার কাছে যদি পুরোনো ২৫ পয়সার কয়েন থাকে, তাহলে সেটি বিক্রি করে আপনি সহজেই প্রচুর টাকার মালিক হতে পারেন। আর এই লকডাউনে তা কাজে লাগতে পারেন অনায়াসেই । আপনার কাছে যদি এই বিশেষ কয়েন থাকে, তাহলে ঘরে বসেই আপনি পেতে পারেন  ১ থেকে দেড় লক্ষ টাকা পারবেন।

 

 

ইন্ডিয়া মার্ট মা শপিক্যুইলের মতোন ওয়েবসাইটে বিক্রি করতে পারবেন আপনার  জমানো পুরোনো  কয়েন। পুরোনো এই কয়েনের  ছবি ওয়েবসাইটে দিলেই এই কয়েন কেনার জন্য আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে। আর তা বিক্রি করেই লক্ষ লক্ষ টাকা রোজগার করতে পারবেন। এছাড়াও মাতা বৈষ্ণ দেবীর ৫ আর ১০ পয়সার কয়েন থাকলে সেগুলোকেও বিক্রি করে আপনি লাখপতি হতে পারবেন। মাতা বৈষ্ণ দেবীর ছবি থাকার কারণে অনেকেই ওই কয়েন গুলোকে শুভ মনে করেন।