একজন দুজন নয় লুধিয়ানার ১৭ জন পুলিশ কর্মীকে একসঙ্গে পাঠান হল কোয়ারেন্টাইনে। কারণ তাঁরা দিন দুই আগে সৌরভ সেহগাল নামে ২৫ বছরের এক গাড়ি চোরকে পাকড়াও করেছিলেন। গত ৫ এপ্রিলের ঘটনা। কোর্টে তোলার আগে ধৃতকেএক দিনের জন্য রাখা হয়েছিল জীবন নগর থানায়। সেখানেই জ্বর আসে ধৃত সৌরভের। তারপরই তাঁর পরীক্ষা করা হয়। তখনই জানাযায় করোনাভাইরাসে সংক্রমিত সৌরভ। তারপরই আর দেরী না করে চিকিৎসা শুরু করা হয় ধৃতের। তাকে পাঠান হয় আইসোলেশনে। একই সঙ্গে তড়িঘড়ি কোয়ারেন্টাইনে পাঠান হয় সংশ্লিষ্ট ১৭ জন পুলিশ কর্মীকে। 

আরও পড়ুনঃ ৮০ জনের একটাই শৌচাগার, করোনা মোকাবিলায় ধারাভিতে কী করে বজায় থাকবে সামাজিক দূরত্ব

আরও পড়ুনঃ মোদীর কথা মতই করোনা প্রতিহত করতে আরও অর্থ বরাদ্দ কেন্দ্রের, চিকিৎসা পরিষেবা উন্নত করাই লক্ষ্য

​​​​​​​আরও পড়ুনঃকরোনার কালো ছায়া রেস্তোরাঁয়, লকডাউনের ধাক্কা কাটাতে লেগে যেতে পারে ২ বছর
স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, একটি গাড়ি চুরি ও ছিনতাইয়ের অভিযোগে সৌরভ ও নভজ্যোত সিং নামে দুজনে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এলাকার দুই সাধারণ ব্যক্তিও অভিযুক্তদের গ্রেফতারে সহযোগিতা করেছিল। কিন্তু সৌরভ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ায় সেই দুই ব্যক্তিকেও কোয়ারেন্টাইনে পাঠান হয়েছে। একই সঙ্গে ধৃতের পরিবারের ১১ জনকেও স্বেচ্ছাবন্দি করে রাখা হয়েছে। 

পঞ্জাব পুলিশের পক্ষ থেকে জানান হয়েছে মেডিক্যাল পরীক্ষার সময় সৌরভের সঙ্গী নভজ্যোত চম্পট দেয়। তাই নভজ্যোতের সন্ধানেই তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। একই সঙ্গে চিহ্নিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে সৌরভ ও নভজ্যোতের সংস্পর্শে কারা কারা হয়েছিল।