Asianet News Bangla

ভারতে আসছে করোনার চতুর্থ টিকা, মডার্না আমদানিতে সিপলাকে অনুমোদন ডিসিজিআই-র

  • ভারতে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পেল 'মডার্না'
  • ওই টিকা দেশে আমদানির জন্য আবেদন করেছিল সিপলা
  • সিপলাকে ওই টিকা আমদানির অনুমতি দিল ডিসিজিআই
  • একথা জানিয়েছেন নীতি আয়োগের সদস্য ভিকে পল
Cipla Allowed To Import Moderna Vaccine For Use In India bmm
Author
Kolkata, First Published Jun 29, 2021, 6:17 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

দেশবাসীর জন্য সুখবর। ভারতে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন পেল 'মডার্না' টিকা। আমেরিকা থেকে এই টিকা আমদানির জন্য দেশের ওষুধ নিয়ামক সংস্থা ড্রাগ কন্ট্রোল জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই)-র কাছে আবেদন করেছিল ওষুধ সংস্থা সিপলা। মঙ্গলবার সেই আবেদনে সাড়া দিয়ে সিপলাকে ওই টিকা আমদানির অনুমতি দিল ডিসিজিআই। একথা জানিয়েছেন নীতি আয়োগের সদস্য ভিকে পল। 

আরও পড়ুন- গর্ভবতী মহিলাদের কোভিড টিকার গাইডলাইন, জেনে নিন কীভাবে দেওয়া হবে করোনার ভ্যাকসিন

এই অনুমোদনের ফলে ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন, সিরাম ইনস্টিটিটিউটের কোভিশিল্ড ও রাশিয়ার স্পুটনিক ভি-র পর চতুর্থ টিকা হিসেবে এদেশে পা রাখতে চলেছে মডার্না টিকা। তবে মডার্না টিকা আপাতত জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহার করা হবে। ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের দেওয়া হবে এই টিকা। ১৮ বছরের কম বয়সীদের টিকাকরণ এখনও হচ্ছে না। 

আরও পড়ুন- টাকা দিয়ে 'ফ্রি টিকা' শিলিগুড়িতে, দুর্নীতির অভিযোগ তুলে তৃণমূলকে নিশানা বিজেপির

ডিজিসিআই-এর পক্ষ থেকে ১৫ এপ্রিল ও ১ জুন নোটিশ দিয়ে জানানো হয়েছিল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন যদি জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য কোনও ওষুধ বা টিকা অনুমোদন করে, তাহলে ট্রায়াল ও সুরক্ষার বিষয়টি যাচাই না করেই প্রথম ১০০ জনকে সেই টিকা বা ওষুধ দেওয়ার বিষয়ে অনুমোদন দেওয়া যেতে পারে। সেই নোটিশের ভিত্তিতেই মডার্না টিকা আমদানির অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছিল সিপলা। তারপরই দেশে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য মডার্নাকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

গত বছর নভেম্বরে তৃতীয় পর্বের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের তথ্য প্রকাশ্যে এনেছিল মডার্না। এই টিকা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ৯০ শতাংশ কার্যকরী বলে দাবি করেছিল সংস্থা। আর মডার্না একটি ‘এমআরএনএ’ ভ্যাকসিন, যা করোনার ডেলটা ভ্যারিয়েন্টের উপর অধিক কার্যকর বলে দাবি করেছেন বিশেষজ্ঞরা। মডার্নাকে আমেরিকা প্রথম জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমোদন দেয় ১৯ ডিসেম্বর। কানাডা অনুমোদন দেয় ২৩ ডিসেম্বর। এরপর অনুমোদন দেয় ইউরোপীয় এজেন্সিও।

অন্যদিকে খুব শীঘ্রই ভারতে ফাইজার টিকা ব্যবহারের অনুমোদনও মিলবে বলে আশাবাদী সংস্থার সিইও অ্যালবার্ট বোরলা। তিনি বলেন, "ফাইজার এখন ভারতে অনুমোদনের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। আমি আশা করি খুব শীঘ্রই আমরা সরকারের সঙ্গে একটি চুক্তি চূড়ান্ত করব।"  

আরও পড়ুন- টিকা পেল ১৩ বছরের কিশোরও - বিতর্ক চলছেই, সামনে আসছে 'জল মোশানো'র কাহিনি

বেশ কয়েকদিন আগেই টিকা আমদানি নীতিতে বদল এনেছে কেন্দ্রীয় সরকার। মার্কিন এজেন্সি এফডিএ, ইউরোপিয়ান এজেন্সি, জাপান ফার্মাসিউটিক্যাল এজেন্সি, ইউকে মেডিসিন মেডিসিন অ্যান্ড হেল্থকেয়ার প্রোডাক্ট রেগুলেটরি এজেন্সি বা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মধ্যে যে কোনও চারটি জায়গার অনুমোদন থাকলে ভারতে সেই টিকাকে ব্যবহার করা যাবে। সেক্ষেত্রে নতুন করে ওই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের কোনও প্রয়োজন নেই। তাই একইভাবে মডার্নার পরীক্ষামূলক প্রয়োগেরও দরকার নেই। এই টিকার দুটি ডোজ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ভিকে পল।
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios