আগামী পয়লা মে পর্যন্ত লকডাউনের কথা ঘোষণা করেছে পঞ্জাব। স্তব্ধ থাকবে জীবন। মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর ঘোষণা করেছে অমরিন্দর সিং-এর সংকর। শুক্রবার পঞ্জাব সরকার যখন লকডাউনের মেয়াদ বাড়াচ্ছে তখন পঞ্জাবে করোনাভাইরাসে সংক্রমিতের সংখ্যা একশো ছাড়িয়েছ। পঞ্জাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৩২। ইতিমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। যা নিয়ে রীতিমত উদ্বগে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। কারণ তিনি গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা করছেন। যদিও কেন্দ্রীয় সরকার আশ্বস্ত করছে যে এখনও পর্যন্ত মহামারীর তৃতীয় ধাপে পৌঁছায়নি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। 

বৃহস্পতিবারই পঞ্জাবে আক্রান্তের সংখ্যা সবথেকে বেশি ছিল। প্রায় ২৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল। যা নিয়ে রীতিমত উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। অন্যদিকে পঞ্জাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ২৭ জনের বিদেশ সফরের পূর্ব ইতিহাস রয়েছে। তাই পরিস্থিতি যাতে হাতের বাইরে চলে না যায় সেই দিকে নজর রাখতেই লকডাউনের মেয়াদ বাড়ান হল বলেও মনে করা হচ্ছে। 
মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং লকডাউনের মেয়াদ আগামী পয়লা মে পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও। সংকট কিছুটা কমলে পঞ্জাব সরকার লকডাউন ধীরে ধীরে কমিয়ে নেওয়ারও সিন্ধান্ত নেবে বলেও জানান হয়েছে। ইতিমধ্যেই একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। যারা আগামী ১০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা দেবে। কৃষি, শিল্প, বাণিজ্য, স্বাস্থ্য সকল বিষয়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলার পরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেই সরকারের পক্ষ থেকে জানান হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃ লকডাউনে ছেলেকে ঘরে ফেরাতে মরিয়া মা, সব উপেক্ষা করে ৩ দিনে অতিক্রম ১৪শ কিলোমিটার
আরও পড়ুনঃ উকুন মারার ওষুধে মাত্র ৪৮ ঘণ্টাতেই 'মরবে' করোনাভাইরাস, দাবি অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীদের .
আরও পড়ুনঃ প্রয়োজনের চেয়েও বেশি রয়েছে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন, দাবি স্বাস্থ্য মন্ত্রকের