আমেরিকা সরবরাহ করা হবে প্রায় এক কোটি  হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন। এই ওষুধই সরবরাই করা হবে ইজরায়েলকে। কিন্তু দেশে রীতিমত সংকটে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। ক্রমাগত বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। তাই পরিস্থিতি কী করে অনুকূলে আসবে যদি প্রয়োজনীয় ওষুধের সরবরাহ না থাকে। যা নিয়ে রীতিমত উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছিলেন দেশের অধিকাংশ মানুষ। এই অবস্থায় শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে প্রয়োজনের তুলনায় বেশি পরিমানে মজুত  রয়েছে  হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন। 
  স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য় অনুযায়ী করোনাভাইরাসে সংক্রমণ সামলাতে বর্তমানে ভারতের প্রয়োজন প্রায় এক কোটি  হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট। কিন্তু দেশে মজুত রয়েছে ৩ কোটি ২৮ লক্ষ  হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট। যা প্রয়োজনের থেকে তিন গুণ বেশি বলেই দাবি করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক। দেশে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন উদ্বৃত রয়েছে বলেই তা রফতানি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তেমনই জানান হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃ নিউ ইয়র্কে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের জন্য চিন দায়ি নয়, ইঙ্গিত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সমীক্ষায়
আরও পড়ুনঃ লাগাতার নমুনা পরীক্ষাতেই সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য, চিন্তা বাড়াচ্ছে আইসিএমআর এর গোষ্ঠী সংক্রমণের ইঙ্...
আরও পড়ুনঃ উকুন মারার ওষুধে মাত্র ৪৮ ঘণ্টাতেই 'মরবে' করোনাভাইরাস, দাবি অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীদের
এদিন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের বিরুদ্ধে প্রথম সারিতে দাঁড়িয়ে লড়াই কতরকা চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীর সঙ্গে সংযত আচরণ করার আবেদন জানান হয়েছে। আইসিএমএর একটি সমীক্ষায় গোষ্ঠী সংক্রমণের ইঙ্গিত দিলেও তা উড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। স্বাস্থ্য মন্ত্রক দাবি করেছে এখনও পর্যন্ত গোষ্ঠী সংক্রমণের কোনও তথ্য সামনে আসেনি। এখনও ভয় পাওয়ার কিছু নেই বলেও জানান হয়েছে। তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে রিতিমত সাবধানতা অবলম্বন করে চলতে হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।