সময়টাই দেখাবার। এতগুলো সোশ্যাল মিডিয়া আছে। কাঁহাতক মেকআপ নিয়ে ঘর ঝাঁড় দেওয়া, বাসন মাজার ছবি পোস্ট করা যায়। তাই প্রধানমন্ত্রী মোদী একবার দেশ কতটা ঐক্যবদ্ধ তা 'দেখাবার' লাইসেন্স দিয়ে দিতেই রবিবার রাতে ভারতবর্ষ জুড়ে ঘটে গেল অকাল দীপাবলি। করোনাভাইরাসের ভয় আর কোথায়, কোথাও দোরালো ফগলাইট জ্বালিয়ে রাস্তা টহল দিল বাইক বাহিনী, কোথাও বাড়ির ছাদে সামাজিক দূরত্ব ঘুচিয়ে চলল 'আমরা করব জয়' গাইতে গাইতে পার্টি, আর অনেক জায়গাতেই বিপুল উৎসাহে গত ১১ দিনের দূষণ মুক্ত পরিবেশের গা গুলিয়ে দিয়ে দেদার বাজি পোড়ানো। আর তা করতে গিয়েই অগ্নিকাণ্ড বাধল বিমান বন্দরে।

পলাতক মহিলার দেওয়া ঠিকানাও ভুয়ো, করোনা-জেহাদির ভয়ে সন্ত্রস্ত গোটা শহর

 

করোনা নিয়ে কেমন কাজ করছে বিজেপি, ৫ পয়েন্টের মার্কশিট তৈরি করে দিলেন মোদী

অতি উৎসাহে অগ্নিকাণ্ড এয়ারপোর্টে, ৯ মিনিটের জায়গায় ২০ মিনিট বাদে নিয়ন্ত্রণে এল আগুন

রবিবার, মহারাষ্ট্রের সোলাপুর বিমানবন্দরের রানওয়ের ঠিক কাছেই বিপুল সংখ্যক আতশবাজি নিয়ে জড়ো হয়েছিলেন কিছু যুবক। রাত ৯টা বাজতেই শুরু হয় সেই আতশবাজিতে আগুন দেওয়া। পাশেই রানওয়ের শুকনো ঘাস ছিল। জ্বলন্ত বাজি সেই ঘাসে পড়ে রানওয়ে ঘাসে লেগে যায়। তবে বিশাল কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই দমকল বিভাগে খবর দেওয়া হয় এবং তারা এসে ২০ মিনিটের মধ্য়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে বলে জানিয়েছেন এক দমকল কর্মকর্তা। তিনি আরও জানান, আগুন লেগেছিল রাত সাড়ে ৯ টা নাগাদ। ঘটনাস্থলে আসে চারটি দমকলের ইঞ্জিন।

অবশ্য ৫ এপ্রিল প্রধানমন্তচ্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে ঐক্য দেখাতে গিয়ে শুধু সোলাপুর বিমানবন্দর এলাকাতেই নয়, দেশের অনেক জায়গা থেকেই অগ্নিকাণ্ডের খবর এসেছে। জয়পুরের বৈশালীনগরে একটি বাড়িতেই আগুন লেগে গিয়েছিল। সেখানেও আগুনের উৎস ছিল বাজি-পটকা। বড় মাপের আগুন লাগার পর দমকলের গাড়ি এসে সেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।