করোনার প্রথম ঢেউয়ের ধাক্কা সামলে উঠতে না উঠতেই, দেশে আছড়ে পড়েছিল দ্বিতীয় ঢেউ। এখনও সেই ঢেউইয়ের দাপটে নাজেহাল দেশবাসী। এরই মধ্যে আবার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। আর সেই কারণেই দ্রুত টিকাকরণ সম্পন্ন করতে চাইছে সরকার। কিন্তু, টিকার আকালের ফলে তা কোনওভাবেই সম্ভব হচ্ছে না। এরই মধ্যে দেশবাসীর জন্য সুখবর দিল হায়দরাবাদের বায়োলজিক্যাল ই সংস্থা। 

দেশের বাজারে করোনা টিকার আকাল মেটাতে শীঘ্রই আসছে বায়োলজিক্যাল ই-র কোরবিভ্যাক্স টিকা। সূত্রের খবর, এই টিকার দুটি ডোজের জন্য খরচ হবে মাত্র ৫০০টাকা। সব ঠিক থাকলে দেশের সবথেকে সস্তা টিকা হবে এটি। যদিও টিকার দাম নিয়ে সংস্থার তরফে এখনও কিছু জানানো হয়নি। সেন্ট্রাল ড্রাগস অ্যান্ডস স্ট্যান্ডার্ডস কন্ট্রোল অর্গানাইজেশনের তরফে অনুমোদন পেয়ে আপাতত এই টিকার তৃতীয় পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে। ২০২০-র নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে টিকার প্রথম ও দ্বিতীয় পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করেছিল এই সংস্থা।

কোরবিভ্যাক্সের প্রথম ও দ্বিতীয় পরীক্ষামূলক প্রয়োগ সাফল্যের সঙ্গেই পাশ করেছে সংস্থা। এমনকী, তৃতীয় ট্রায়ালের ফলাফলও যথেষ্ট ইতিবাচক বলে কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে।

শোনা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই নাকি এই টিকার ৩০ কোটি ডোজ বুক করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। চলতি বছরের অগাস্ট থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে কেন্দ্রকে সেই ডোজগুলি সরবরাহ করবে সংস্থাটি। এর ফলে টিকার আকাল অনেকটাই মিটবে বলে আশা করা হচ্ছে। 

এছাড়া দেশে টিকাকরণের শুরু থেকেই ভারতের বাজারে রয়েছে কোভ্যাক্সিন ও কোভিশিল্ড টিকা দুটি। সম্প্রতি তার সঙ্গে যোগ দিয়েছে রাশিয়ার করোনা টিকা স্পুটনিক ভি। সোমবার থেকে কলকাতায় স্পুটনিক ভি-র টিকাকরণ শুরু হবে। অ্যাপোলো হাসপাতালে এই টিকা পাওয়া যাবে।