কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্যে রাজ্যে যে ভেন্টিলেটর যন্ত্রগুলি পাঠানো হয়েছে, সেগুলির ইনস্টলেশন অর্থাৎ স্থাপনা ও পরিচালনা সম্পর্কে অবিলম্বে অডিট করার নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শনিবার ফের দেশের কোভিড পরিস্থিতি এবং টিকাদান অভিযান সংক্রান্ত পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন মন্ত্রক ও দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী। সেই বৈঠকেই তিনি বেশ কয়েকটি রাজ্যে কেন্দ্রের পাঠানো ভেন্টিলেটর অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থাকার বিষয়ে কয়েকটি সংবাদ প্রতিবেদন তুলে ধরে এই নির্দেশ দিলেন। কাজেই খুব শীঘ্রই হয়তো ভেন্টিলেটর যন্ত্রগুলি নিয়ে জবাবদিহি করতে হবে রাজ্যদের।  

শুধু ভেন্টিলেটর যন্ত্রই নয়, প্রধানমন্ত্রী এদিন নির্দেশ দিয়েছেন গ্রামীণ এলাকায় অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর-সহ অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করার বিষয়ে জোর দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, এ জাতীয় চিকিৎসা সরঞ্জামাদি পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণও দিতে হবে এবং এই যন্ত্রেগুলি পরিচালনার জন্য যাতে সর্বক্ষণ বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত থাকে, তাও নিশ্চিত করতে হবে।

সেইসঙ্গে করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গের মোকাবিলায় যেসব জেলায় ইতিবাচকতার হার বেশি, সেইসব জেলায় স্থানীয়ভাবে বিধিনিষেধ জারি করার উপর জোর দিয়েছেন। আরটিপিসিআর এবং র‌্যাপিড টেস্ট - উভয় পদ্ধতিতেই এই এলাকাগুলিতে পরীক্ষার সংখ্যা আরও বাড়াতে হবে। সেইসঙ্গে রাজ্যগুলির কাছে তিনি করোনা সংক্রমণের রিপোর্ট স্বচ্ছতার সঙ্গে জানানোর জন্য আহ্বান করেছেন। আশ্বাস দিয়েছেন, সংক্রমণের সংখ্য়া বেশি হলেও রাজ্য প্রশাসনের উপর তার কোনও বিরূপ প্রতিক্রিয়া পড়বে না। গ্রামীণ অঞ্চলে স্বাস্থ্যসেবা সংস্থান বৃদ্ধির জন্য প্রধানমন্ত্রী আশা ও অঙ্গনওয়ারি কর্মীদের হাতে  সমস্ত প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম তুলে দেওয়ার নির্দেশও দিয়েছেন।