বরাবরই যোগাভ্যাসের চর্চা করার কথা বলে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। যোগ দিবসে একাধিকবার তাঁকে জনসমক্ষে দেখা গেছে যোগাসন করতে। এমনকি প্রধানমন্ত্রী নিজের যওগাসনের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন অতীতে। ফের একবার সেই যোগাভ্যাস নিয়েও জোড়ালো সওয়াল করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই লকডাউনের সময় সুস্থ থাকতে প্রতিটি দেশবাসীকে যোগচর্চার অনুরোধ করলেন মোদী।

রবিবার 'মন কি বাত' অনুষ্ঠান করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয়ের একাধিক গল্প শোনান প্রধানমন্ত্রী। সেই সময় এক উৎসাহী স্রোতা প্রশ্ন রেখেছিলেন তাঁর কাছে, জানতে চেয়েছিলেন এই লকডাউনের সময় কী করছেন প্রধানমন্ত্রী। তার উত্তরে মোদী বলেছিলেন ভিডিও পোস্ট করে এর উত্তর দেবেন তিনি। তার ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও পোস্ট করতে দেখা গেল প্রধানমন্ত্রীকে।

দেশে বাড়ান হচ্ছে নাকি লকডাউনের মেয়াদ, কানাঘুষোর জবাব দিলেন ক্যাবিনেট সচিব

সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১১ জন আক্রান্ত, খুব শীঘ্রই করোনামুক্ত রাজ্য ঘোষণা তেলেঙ্গানাকে

এদেশেও এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের দেখাভালে রোবট, পথ দেখাল তামিলনাড়ু

২০১৮ সালে প্রথমবার ইউটিউবে ৩ডি অ্যানিমেশনে প্রধানমন্ত্রীকে যোগাসন শেখাতে দেখা গিয়েছিল। সেই ভিডিওই ফের একবার পোস্ট করলেন মোদী। জানালেন, এগুনো নিয়মিত করে তিনি অনেক উপকার পয়েছেন। তাই দেশবাসীকে প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধ, করোনা সংক্রমণ আটকাতে লকডাউনের সময় বাড়িতেই থাকুন। আর নিজেকে সুস্থ রাখতে যোগচর্চা করুন।  সবাই যদি নিয়মিত এই চর্চা করেন তাহলে সুস্থ থাকবেন ঘরে বসেই।

 

 

সুস্থ থাকতে যদি অন্য কোনও উপায় জানা থাকে, তাও দেশবাসীর কাছে জানতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর কথায়,  "আমি কোনও ফিটনেস বিশেষজ্ঞ বা চিকিৎসক নই। তবে নিয়মিত নানা যোগাভ্যাসের ফলেই আমি সুস্থ। তাই সবাইকে এই অনুরোধ, আপনাদেরও যদি এমন কোনও উপায় জানা থাকে তাহলে অবশ্যই সবার উপকারের জন্য শেয়ার করুন। ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন। সবাইকে সুস্থ রাখুন।" 

 

 

প্রধানমন্ত্রীর যোগাসোন শেখানোর এই ভিডিও বাংলা ছাড়াও তামিল, তেলগু, হিন্দি-সহ বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাষা তৈরি করা হয়েছে। এমনকি জার্মান, স্প্যানিসের মত বিদেশি ভাষাতেও যোগাসোন শিখিয়েছেন অ্যানিমেটেড প্রধানমন্ত্রী। সেখান থেকে নিজে পছন্দ মতো ভাষা বেছে নিয়ে যোগাসন শিখা যাবে  প্রপধানমন্ত্রীর  ইউটিউব চ্যানেলে৷

 

 

করোনা প্রতিরোধে সমাজ সচেতনতা এবং সময় মতো চিকিত্‍সার পাশাপাশি  প্রধানমন্ত্রী জোর দিচ্ছেন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমিউনিটি বাড়ানোর বিষয়েও। তাই পুষ্টিকর খাবারের পাাপাশি নিয়মিত শরীরচর্চাই যে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলবে তাও প্রচার করতে ভুলছেন না তিনি।