আবারও আক্রান্ত হলেন করোনা সৈনিকরা। এবার উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদে। করোনা সৈনিক স্বাস্থ্য কর্মীদের একটি দলকে  লক্ষ্য করে চলল পাথর বৃষ্টি। আর তাঁদের উদ্ধার করতে এসে আক্রান্ত হলেন পুলিশ কর্মীরাও। এই ভয়ঙ্কর ঘটনার প্রতিবাদে সঙ্গে সঙ্গেই সরব হয়েছেন যোগী আদিত্য নাথের প্রশাসন। ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে ১০ জন অভিযুক্তকে। 
 
ঘটনার সূত্রপাত এক করোনা আক্রান্ত এক মৃতের পর। বাড়িতেই মৃত্যু হয়েছেল রোগীর। তারপরই মৃতের পরিবারকে উদ্ধার করেতে নবাবপুরা কলোনিতে গিয়েছিলেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের একটি দল। প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকদের অনুমান মৃতের পরিবারের এক সদস্যও করোনাভাইরাসে সংক্রমিত।  মৃতের আত্মীয়দের তড়িঘড়ি  কোয়ারেন্টাইনে পাঠানই মূল উদ্দেশ্য ছিল। মৃতের পরিবার যখন অ্যাম্বুলেন্সে উঠছিল তখন আসপাশের বাড়ি থেকে উড়ে আসতে থাকে একের পর ইঁট আর পাথর। এই ঘটনায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন অ্যাম্বলেন্সের চালক। স্থানীয় পুলিশ স্বাস্থ্য কর্মী ও চিকিৎসকদের উদ্ধার করতে এসে আক্রান্ত হয়। বেশ কয়েক জন স্বাস্থ্য কর্মী আক্রান্ত হয়েছে বলেও সূত্রের খবর।

আরও পড়ুনঃ লকডাউনের বাজারে পুরুলিয়ায় উদ্ধার বন্য জন্তুর শাবক, চিতা বাঘের বাচ্চা বলে দাবি.
আরও পড়ুনঃ 'চলো ঘর কি ওর' সোশ্যাল মিডিয়ায় এই প্রচারের কারণেই মুম্বইতে অভিবাসী শ্রমিকদের হুড়োহুড়ি, গ্রেফতার অভ...
আরও পড়ুনঃ চিনের মাত্র ৬ দিনের অপেক্ষা, তাতেই করোনাভাইরাস নিয়ে বিশ্ব জুড়ে ত্রাহি ত্রাহি রব

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে এলাকার প্রায় ১৫০ ক্ষিপ্ত মানুষ  জড়ো হয়ে হামলা চালায়। তবে পুলিশের দাবি উদ্ধার করা গেছে চিকিৎসক, স্বাস্থ্য কর্মী ও মৃতের পরিবারকে। 

এই ঘটনায় বেজায় ক্ষুব্ধ উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্য নাথ।  অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেন তিনি। পাশাপাশি জাতীয় সুরক্ষা আইন অনুযায়ী মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।