রাজ্য সরকার কি তাঁকে গৃহবন্দি করে রাখতে চাইছে? কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরীর আবাসনে কোয়ারেন্টাইন নোটিস লাগানোকে কেন্দ্র রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে রায়গঞ্জে। ঘটনার জন্য জেলাশাসক ফোন করে ক্ষমা চেয়েছেন বলে দাবি করেছেন দেবশ্রী। 

আরও পড়ুন: ওষুধের বোতলে মুখ দিলেই চড়ছে নেশা, লকডাউনের মাঝে চাঞ্চল্যকর পর্দাফাঁস কল্যাণী গ্যাং-এর

লকডাউনের মাঝেই দিল্লি থেকে রায়গঞ্জে চলে এসেছেন স্থানীয় সাংসদ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। বৃহস্পতিবার মানুষ করোনা নিয়ে সচেতন করতে পথে নামেন তিনি। বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে সেদিন মাস্ক বিলি করেন তিনি। লকডাউন সফল করতে রীতিমতো মাইকিং করে চলে প্রচারও।  কিন্তু বাইরে থেকে এলে যখন ১৪ দিন আইসোলেশনে থাকার নির্দেশ জারি করেছে সরকার, তখন খোদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কীভাবে রাস্তা বেরিয়ে পড়লেন? প্রশ্ন তোলেন বিরোধীরা। সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরীর বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য বিধিবভঙ্গের অভিযোগে জেলাশাসকের কাছে নালিশ জানানো হয়। জেলাশাসকের কাছে আলাদাভাবে অভিযোগ জানানো হয় রায়গঞ্জ পুরসভার তরফেও। 

আরও পড়ুন: রাজ্য়ে করোনায় মৃত বেড়ে ৫ আক্রান্ত ৬৯, খোদ জানালেন মুখ্য়মন্ত্রী

আরও পড়ুন; কেন্দ্রের ধাঁচে বেতন কমানো হোক রাজ্য়ের বিধায়কদের,মমতাকে আর্জি রাজ্য়পালের

শনিবার সকালে যখন তাঁর ফ্ল্যাটে হোম কোয়ারেন্টাইনের নোটিশ লাগাতে যান রায়গঞ্জ পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা, তখন বাধা দেন সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী। বলেন, তিনি হোম আইসোলেশনেই আছেন। ফ্ল্যাটের দরজায় নোটিস দেখলে অহেতুক আতঙ্ক ছড়াবে এলাকায়। তখনকার মতো স্বাস্থ্যকর্মীরাফিরে যান। রাতে বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে ফের সাংসদের ফ্ল্যাটে নোটিশ লাগাতে যান স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকরা। কিন্তু সেবারও রুখে দাঁড়ান মোদি সরকারের মন্ত্রী। শেষপর্যন্ত সোমবার রাতে সবার অলক্ষ্যে রায়গঞ্জে শহরে যে আবাসনে থাকেন দেবশ্রী চৌধুরী, সেই আবাসনে দেওয়ালে প্রশাসনের তরফে কোয়ারেন্টাইনের নোটিস লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

এই ঘটনায় রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে 'সস্তার রাজনীতি' করার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি-এর উত্তর দিনাজপুরের জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী। তিনি বলেন, 'প্রধানমন্ত্রীর লকডাউনের নির্দেশ মেনে ২৩ মার্চ থেকে হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। মঙ্গলবারই চোদ্দো দিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা। তাঁকে বাড়িতে আটকে রাখার জন্য রাতের অন্ধকার ফের নোটিস ঝুলিয়েছে প্রশাসন।' রায়গঞ্জের বিডিও রাজু লামা অবশ্য জানিয়েছেন,'৩১ মার্চ কলকাতা থেকে রায়গঞ্জে এসেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। সেই হিসেবেই তাঁর বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনের নোটিস লাগানো হয়েছে।'