বিশ্বে এখন সবচেয়ে করোনা আক্রান্ত দেশ আমেরিকা। বর্তমানে দেশটিতে সংক্রমণের সংখ্যা ৪ লক্ষ ছাড়িয়েছে। মৃত্যু মিছিল ১২ হাজার ছাড়িয়ে দৌঁড়ছে ১৩ হাজারের দিকে। এই অবস্থায় ভারত ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন আমেরিকায় রফতানি না করলে তার ফল ভোগ করতে হবে বলে আগেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার পরেই ভারত সরকার মঙ্গলবার প্যারাসিটামল ও হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন রফতানির ক্ষেত্রে আংশিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। আর তার পরেই মার্কিন প্রেসিডেন্টের রক্ষুচক্ষু গিয়ে এবার পড়ল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  'হু'-এর দিকে। 

করোনাভাইরাস ছড়ানোর কারণ হিসাবে চিনের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলে আসছে আমেরিকা-সহ পশ্চিমি দুনিয়ার একাধিক দেশ। বিষয়টি নিয়ে  বেজিং-কে লক্ষ্য করে একাধিকবার তির ছুড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তোপ দেগেছেন  বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 'হু'কেও। বিশ্ব জুড়ে বেড়ে চলা করোনা সঙ্কটের মধ্যেও হু-এর মতো সংস্থা চিনের পক্ষেই কথা বলছে বলে আগেই  অভিযোগ করেছিলেন ডোনাল্ড  ট্রাম্প। ফের একবাস সেই সুরেই কথছা বলতে দেখা গেল মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। 

করোনা আক্রান্ত বিশ্বকে পথ দেখাল উহান, লকডাউনের ৭৬ দিন পর একেবারে স্বাভাবিক জীবনে শহরবাসী

লকডাউনে বাড়িতে বসেই বাড়িয়ে ফেলুন প্রতিরোধ ক্ষমতা, করোনা যুদ্ধে নামার টিপস দিল খোদ সরকার

আম জনতার মত তিনিও লুঙ্গি পরেই করছেন 'ওয়ার্ক ফ্রম হোম', একি বললেন দেশের অন্যতম শিল্পপতি

হোয়াইট হাউসে সাংবাদিক সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও চিনের পক্ষ নিয়ে তথ্য গোপন করছে। চিনকে আড়াল করার সবরকম চেষ্টা চালাচ্ছে  'হু'।  এরপরেই ট্রাম্পের হুমছি ছিল,   “হু-কে পাঠানো ফান্ড বন্ধ করে দেওয়া হবে।” তার কিছুক্ষণ পরেই অবশ্য তিনি কথা বদলান, এবার বলেন, “আমি বলিনি ফান্ড বন্ধ করে দেওয়া হবে। আমি বলেছি আমরা এই ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করে দেখব।” প্রসঙ্গত, রাষ্ট্রসংঘকে সবথেকে বেশি আর্থিক সাহায্য আমেরিকাই করে থাকে। আর তাই এই আন্তর্জাতিক সংস্থায় আমেরিকার দাপট অন্য দেশগুলির থেকে বেশি। সেই আর্থিক সাহায্য বন্ধেরই ভয় দেখালেন ট্রাম্প। আর এই আর্থিক সাহায্য বন্ধ হয়ে গেলে চাপ বাড়বে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়নের উপর। 

ট্রাম্প চোখ রাঙ্গালেও করোনাভাইরাস মোকাবিলায় অবশ্য 'হু'-য়ের প্রশংসা শোনা গেছে  রাষ্ট্রসংঘের গলায়। হু-য়ের প্রধানের নেতৃত্বে গোটা বিশ্বে করোনা ভাইরাস মোকাবিলা অত্যন্ত ভাল ভাবে হয়েছে বলে প্রশংসা করেছে রাষ্ট্রসংঘ।