করোনার দ্বিতীয় ঢেউ গ্রাস করেছে গোটা বিশ্বকে। যত দিন যাচ্ছে ততই যেন নিজের চরিত্র বদলে নিচ্ছে করোনা ভাইরাস। একের পর এক নয়া উপসর্গ নিয়ে হাজির হচ্ছে এই মারণ ভাইরাস। লকডাউনে বেরানোর উপায় নেই। এই সময়টায় যতটা সতর্ক থাকা যায় ততটাই ভাল। হঠাৎ বিপদে পড়লেও হাসপাতালে যাওয়াটাও  বড় সমস্যার। কোভিড-১৯ এর জেরে বেশিরভাগ হাসপাতালের সাধারণ পরিষেবাও বন্ধ। অগত্যা অনলাইন পরিষেবাই সকলের ভরসা।

আরও পড়ুন-সামান্য বিনিয়োগেই আয় করুন দ্বিগুন, লকডাউনে দুর্দান্ত সুযোগ দিচ্ছে এই সরকারি সংস্থা...

করোনা আতঙ্কে সকলেই ত্রস্ত হয়ে উঠেছে।  বাজার ,দোকান, যতটা পারছে একেবারেই করে রাখছে। তাই জটিল কিছু না হলে যতটা নিজে থেকে সমাধান করা যায় ততটাই ভাল। মহাসঙ্কটের দিনে আপৎকালীন পরিস্থিতি কীভাবে সামলাবেন। তার জন্য সবার আগে যেটা দরকার সেটা হল বিশেষ কয়েকটি জিনিস। যা সবসময় হাতের কাছে মজুত রাখতে হবে। জেনে নিন তালিকা।

 

 

বরফ- ফ্রিজে সবসময় বরফ রাখতেই হবে। পোড়া, ছ্যাকা, ফুলে যাওয়া আরও বিভিন্ন কাজে বরফ দারুণ কাজে লাগে। তাই ফ্রিজে বরফ রাখা মাস্ট। 

হট ও কোল্ডব্যাগ- হঠাৎ কোথায় ব্যাথা লাগলে অনেকসময়েই গরম সেক দিলে তা কমে যায়। সেই কারণে হাতের কাছে হট ব্যাগ সবসময় রাখুন। গরম-ঠান্ডা সেক দিলে অনেক ব্যথাই নিমেষে কমে যায়। শুধু তাই নয়, ওষুধের থেকেও বেশি কাজ করে।

তুলো- তুলো কমবেশি সবার ঘরেই থাকে। কেটে যাওয়া থেকে পরিষ্কার সব ক্ষেত্রেই তুলো ব্যবহার করা হয়। এমনকী সাজসজ্জাতেও তুলোর ব্যবহার রয়েছে। তাই সবার আগে তুলে রাখুন।

কাঁচি- কাঁচি এমনই একটা জিনিস যা ভীষণই কাজে লাগে। কিন্তু দরকারের সময় তা আর পাওয়া যায় না। তাই একটি বক্সের মধ্যে নির্দিষ্ট জায়গায় তা রেখে দিন।

ব্যান্ডেড- ব্যান্ডেড ভীষণই দরকারি একটি জিনিস। কাজ করতে করতে যে কোনও জায়গা কেটে যেতে পারে। তাই ব্যান্ডেড থাকলে প্রাথমিক কেয়ারে অনেকটাই সুবিধা হয়।

ওষুধ- জ্বর, সর্দি-কাশি, পেটে ব্যথা, অম্বল, গ্যাস, বমি এই নর্মাল কিছু ওষুধ সবার আগে ঘরে মজুত রাখুন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।