করোনা আতঙ্কে লকডাউন পরিস্থিতি প্রায় সারা বিশ্ব জুড়ে। সারা বিশ্ব হিমশিম খাচ্ছে এই মারন ভাইরাসকে ঠেকাতে। কোবিড১৯ এর হাত থেকে বাঁচকে প্রায় সমগ্র বিশ্ব রয়েছে লকডাউন পরিস্থিতিতে। লকডাউন পরিস্থিতিকে সফল করতে তাই সাধারণকে গৃহবন্দি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সরকারের তরফ থেকে।  লকডাউন লাগু করা হলেও প্রচুর মানুষ তা মানছেন না। বাইরে বেরিয়ে আসছেন। 

আরও পড়ুন- করোনা ভাইরাস ঠেকাতে জীবানুমুক্ত রাখুন আপনার স্মার্টফোন, জেনে নিন সহজ উপায়

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই বিষয়ে বলেছেন, "লকডাউনে ঘরবন্দি হয়ে থাকাটা খুব কঠিন। কিন্তু, করোনাভাইরাস ঠেকাতে হলে লকডাউন অত্যন্ত জরুরি। এটি লক্ষ্মণ রেখার মধ্যে থাকতে হবে প্রতিটি মানুষকে। তাই এই সময়ে ঘরে থাকাটা জরুরি। তাই সমস্যা হলেও এই মুহূর্তের পরিস্থিতিটা বুঝতে হবে এবং তা মেনে ঘরেই থাকতে হবে।" শুধু প্রধানমন্ত্রীই নন একই বার্তা দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। তিনি বার বার রাজ্যবাসীর কাছে অনুরোধ করেছেন এই পরিস্থিতিতে ঘরের বাইরে না বেরোতে। পাশাপাশি প্রসাশনের কাজে সহযোগীতা করতে।

আরও পড়ুন- লকডাউনের জের, নির্জনতার সুযোগে সমুদ্র সৈকত দখল করল কয়েক লক্ষ কচ্ছপ

দেশের প্রধাণমন্ত্রী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী-সহ স্যোশ্যাল মিডিয়ায় সেলিব্রেটি থেকে শুরু করে বহু সাধারণ মানুষ বার বার একই বার্তা দিয়েছেন। দয়া করে ঘরে থাকুন। এই সময়টা কোনও উৎসবের সময় নয়, বরং একজোট হয়ে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার সময়। সেই একই বার্তা দিয়েছে জিডি বিরলা প্রাইমারী স্কুলের ক্লাস টু-এর এক খুদে, নাম শতাক্ষী রক্ষিত। সাধারণ মানুষকে এই মারণ ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষার জন্য একটি ছবি এঁকে শতাক্ষী জানিয়েছে, "স্টে হোম স্টে এলাইভ" বার্তা। ছো্ট্ট শতাক্ষী এশিয়ানেট নিউজ বাংলার মাধ্যমে সমস্ত সাধারণ মানুষকে বার্তা দিতে চেয়েছে। সে জানিয়েছে, "ছোট্টদের কথা ভেবে দয়া করে ঘরে থাকুন। এই ভাইরাসের দাপট আর বাড়তে দেবেন না। আজ আপনাদের অকারণে বাড়ির বাইরে যাওয়া ছোট্টদের বিপদ আরও বাড়িয়ে দিতে পারে।  করোনা বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামিল হোন বাড়িতে থাকুন সুস্থ থাকুন সকলে।"