বিশ্বকাপের দলে তাঁর সুযোগ পাওয়াটা তাঁর একেবারেই ভাগ্যের সহায়তায়। প্রথমে তাঁকে দলে রাখা হয়নি। কিন্তু তাতেও তিনি ভেঙে পড়েননি বরং ইতিবাচক থেকে আরও ভাল খেলার চেষ্টা করেছিলেন - বিসিসিআই-এর পোস্ট করা একটি ভিডিওয় যুজবেন্দ্র চাহালের নেওয়া সাক্ষাতকারে, এই কথাই জানিয়েছেন ঋষভ পন্থ।

চাহালের এই সাক্ষাতকার নেওয়া ভারতীয় সমর্থকদের কাছে চাহাল টিভি নামে পরিচিত। সেখানে ঋষভ জানান, বিশ্বকাপের দলে সুযোগ না পেয়ে তিনি মনে করেছিলেন তাংর খেলায় খামতি রয়েছে। কিন্তু সেই নিয়ে বেশই ভাবিত না হয়ে তিনি নিজেকে ক্রিকেটে আরও বেশি করে ডুবিয়ে দিয়েছিলেন। আইপিএল ভাল খেলায় মন দেন। অনুশীলনও বাড়িয়ে দিয়েছিলেন।

ভারতের এই তরুণ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান চাহালকে আরও জানান, ভারতের প্রত্যেক ক্রিকেটারই স্বপ্ন দেখেন দেশকে জেতানোর। শিখর ধাওয়ানের আঙুলের চোট তাঁর সামনে সেই সুযোগ এনে দিয়েছে। তাঁকে প্রথমে কিন্তু ধাওয়ানের ‘কভার’ হিসাবেই ইংল্য়ান্ডে ডাকা হয়েছিল। পরে ধাওয়ান একেবারেই খেলতে পারবেন না নিশ্চিত হওয়ার পর পন্থকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

সেই ডাক যখন এসেছিল তখন তাঁর সঙ্গে তাঁর মা উপস্থিত ছিলেন। খবরটা পেয়েই তাই মাকেই প্রথম জানান পন্থ। তারপরই তাঁর মাকে মন্দিকরে গিয়েছিলেন পুজো দিতে। তিনি আরও জানান, একজন ক্রিকেটার হিসাবে তিনি সবসময়ই বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন দেখতেন। পড়ে পাওয়া চোদ্দ আনার মতো সুযোগ যখন এসেছে, তখন তার পূর্ণ সদ্ব্যবহার করতে চান তিনি।