মন ভেঙে গিয়েছে ভারতীয় সমর্থকদের। বুধবার দুদিন ধরে চলা বিশ্বকাপ ২০১৯-এর প্রথম সেমিফাইনাল থেকে ছিটকে গিয়েছে ভারত। বিশঅবকাপের শুরুতে ভারত ও ইংল্যান্ড, এই দুটি দলকেই কাপ জেতার সবচেয়ে বড় দাবিদার ধরা হচ্ছিল। কিউরিরা তাদের একজনকে ছিটকে দিয়েছে। আজ অজিদের সামনে সুযোগ ইংরেজদেরও ছুটি করে দিয়ে হত বিশ্বকাপের ফাইনালের আইনআপ, এই বিশ্বকাপেও বজায় রাখার।

২৭ বছর পর ইংরেজরা আরও একবার বিশ্বকাপের শেষ চারে এসে পৌঁছেছে। ক্রিকেটের জনক হয়েও এখনও পর্যন্ত একটিও ক্রিকেট বিশ্বকাপ জিততে পারেনি তারা। এইবারই সবচেয়ে বড় সুযোগ রয়েছে। সহজে হাতছাড়া করতে চাইবেন না অইন মর্গানরা।

অপরদিকে, গত একবছর ধরে অস্ট্রেলিয়া দল ক্রিকেট বিশ্বে খুব একটা পাত্তা পাচ্ছিল না। টানা ৬টি সিরিজে হারের পর ভারত ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পর পর দুটি সিরিজ জিতে বিশ্বকাপ খেলতে এসেছিল চ্যাম্পিয়নরা। আর এখন বিশ্বকাপটা আরও একবার ধরে রাখার খুব কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে।

ক্রিকেট দুনিয়ার সবচেয়ে পুরনো প্রতিদ্বন্দ্বী এই দুই দল। অনেক ইতিহাস, অনেক স্মরণীয় মুহূর্ত রয়েছে এই দুই দলের লড়াইয়ে। প্রথম বিশ্বকাপের সেমিফাইনালেই যেমন মুখোমুখি হয়েছিল ব্রিটিশ ও অজিরা। তাছাড়া দুই দলেরই ব্য়াটার, বোলাররা প্রায় প্রত্যেকেই ফর্মে রয়েছে।
অজিদের হয়ে ব্য়াটে ওয়ার্নার-ফিঞ্চ আগুন ঝড়ালে, ইংরেজদের পক্ষেও একই কাজ করে দেখাচ্ছেন জেসন রয়, বেয়ারস্টো, রুটরা। আবার অস্ট্রেলিয়ার হয়ে যেমন স্টার্ক-কামিন্সরা ভুড়ি-ভুড়ি উইকেট নিচ্ছেন, তেমনই ইংরেজদের হয়ে সোনা ফলাচ্ছেন আর্চার, মার্ক উড, ক্রিস ওকসরা। নাতান লিয়ন ও আদিল রশিদের মতো দুই ভাল মানের স্পিনারও রয়েছে। কাজেই একটা জমজমাট সেমিফাইনালের আশা করা হচ্ছে।

তবে প্রথম সেমিফাইনালের মতো বার্মিংহামেও যাবতীয় উত্তেজনায় জল ঢালতে পারে বৃষ্টি। গোটা দিনই মাঝে মাঝেই বৃষ্টি এসে খেলায় বিঘ্ন ঘটাতে পারে। এজবাস্টনে বিশ্বকাপের চারটি ম্য়াচ হয়েছে। প্রথম দুই ম্যাচে ২৪০-এর আশপাশে রান উঠেছিল। শেষ দুই ম্যাচে কিন্তু ৩০০-এর বেশি রান হয়েছে। বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে, তাই আকাশে মেঘ থাকার কারণে পেসাররা সুবিধা পাবেনই।

পেসাররা সুবিধা পাবেন বলেই ইংরেজ দলে মইন আলির ফেরার সম্ভাবনা কম। প্রথম একাদশ অপরিবর্তিতই থাকার সম্ভাবনা বেশি। অন্যদিকে অজি দলে একটি পরিবর্তন অবশ্যম্ভাবি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তাদের শেষ গ্রুপ ম্যাচে হ্যামস্ট্রিং-এ চোট পেয়েছিলেন উসমান খোয়াজা। তাঁকে দেশে ফেরত পাঠিয়ে তাঁর বদলে উড়িয়ে আনা হয়েছে পিটার হ্যান্ডসকম্বকে। এদিন প্রথম একাদশে তাঁকে দেখতে পাওয়া যাবে। নাথান লিয়ন ও বেহরেনডর্ফও প্রথম একাদশে থাকবেন।

দুই দলের সম্ভাব্য একাদশ -

ইংল্যান্ড

জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, অইন মর্গান, বেন স্টোকস, জস বাটলার, ক্রিস ওকস, আদিল রশিদ, লিয়াম প্লাঙ্কেট, জোফ্রা আর্চার ও মার্ক উড।

অস্ট্রেলিয়া

অ্যারন ফিঞ্চ, ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভ স্মিথ, পিটার হ্যান্ডসকম্ব, মার্কাস স্টইনিস, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, অ্যালেক্স কেরি, প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, জেসন বেহরেনডর্ফ এবং নাথান লিওন।