মঞ্চ প্রস্তুত। প্রস্তুত খেলোয়াড়রাও। রবিবার ক্রিকেট জগতের সবচেয়ে উত্তেজক ম্যাচ ভারত বনাম পাকিস্তান। চার বছর পর ফের আইসিসি বিশ্বকাপে মুখোমুখি দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী।

বিশ্বকাপের এই ম্যাচে এখনও পর্যন্ত এক তরফা জিতে এসেছে ভারত। আজহারের পর সৌরভ, ধোনি এই পরম্পরা ধরে রেখেছেন। বিরাট কোহলির দলও  প্রতিবেশী দেশের বিরুদ্ধে এই জয়ের ধারা অক্ষুন্ন রাখতে সর্বস্ব উজার করে দেবে। বিরাট ম্যাচের আগে বলেওছেন পাকিস্তানের বিরুদ্ধেই সেরাটা বার হয়।

অন্যদিকে, সরফরাজ-বাহিনির সামনে ইতিহাসের হাতছানি। ইমরান খান থেকে মিসবা উল হক-রা যা পারেননি, তাই হতে পারে রবিবার। অনেকটা কবে ঘি ভাত খেয়েছে, এখনও হাতে সেই ঘিয়ের গন্ধ খোঁজার মতো, আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সুখস্মৃতি তাদের ভরসা জোগাচ্ছে। বাবর আজম বলেছেন সেই বিশেষ দিনটা মনে করছেন তাঁরা। কোচ মিকি আর্থার দলের ছেলেদের বলেছেন ওল্ড ট্রাফোর্ডে তারা নায়ক হয়ে উঠতে পারেন।

এমনিতে বর্তমান ভারতীয় দল ধারে, ভারে, সব দিক থেকেই বর্তমান পাক দলের থেকে এগিয়ে। শেষবার এশিয়া কাপে পর পর দুই ম্যাচে গোহারান হেরেছিল তারা। কিন্তু পাকিস্তান দলকে ভয়ঙ্কর করে তুলেছে তাদের অধারাবাহিকতার ঐতিহ্য। বরাবরই পাকিস্তান দলের পারফরম্যান্স ওঠা-নামা করে। আর তাতে তফাত হয়ে যায় কয়েক যোজনের। তাই পাকিস্তানকে তালিকা থেকে মুছে দিলেই তারা ছোবল মারতে পারে।

চলতি বিশ্বকাপেই তার প্রমাণ মিলেছে। প্রথম ম্যাচে ১০৫ রানে অলআউট হওয়ার পরের ম্যাচেই ৩৪৮ রান তুলেছিল। তাও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আবার বোলিং-এ ইনিংসের মাঝেই আচমকা বদলে গিয়েছিল তাদের পারফরম্যান্স লেখ।

পিচ ও আবহাওয়ার খবর

ওল্ড ট্রাফোর্ডের পিচ স্পিন সহায়ক হয়েছে। পিচ বেশ শুকনো হওয়ায় খেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে জোরে বোলাররা রিভার্স সুইং পেতে পারেন। এই পিচে বড় রান উঠতেই পারত। কিন্তু আবহাওয়া পরিস্থিতি বদলে দিয়েছে।

পূর্বাভাস মোটেই ভাল নয়। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা ম্যঞ্চেস্টার শহরের আশপাশে। ওল্ড ট্রাফোর্ডে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকবে। তবে একেবারে ম্যাচ বাতিলের পরিস্থিতি হবে না বলেই আশা করা হচ্ছে। পুরো ১০০ ওভারের যে খেলা হবে না সেই বিষয়টি প্রায় নিশ্চিত। বিকেলের দিকে বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। এই অবস্থায় বোলাররাই ম্যাচে দাপট দেখাবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারতীয় দলের খবর

আঙুলের হাড়ে চিড় ধরেছে, তাই এই ম্যাচে নেই শিখর ধাওয়ান। তাঁর অনুপস্থিতিতে কেএল রাহুল ইনিংসের গোড়াপত্তন করবেন রোহিত শর্মার সঙ্গে। আর চার নম্বরে পাক ম্যাচেই বিশ্বকাপ অভিষেক হতে চলেছে বিজয় শঙ্করের - এরকমই শোনা যাচ্ছে। এছাড়া  বাকি দল অপরিবর্তিতই থাকতে চলেছে।

পাকিস্তান দলের খবর

শাহিন আফ্রিদির পরিবর্তে শাদাব খানের প্রথম একাদশে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে। শোয়েব মালিক একেবারেই ফর্মে নেই। এই ম্যাচে তাঁর বদলে ইমাদ ওয়াসিম বা মহম্মদ হাসনাইনের মধ্যে একজনকে খেলানোর কথা চলছে।

ভারতের সম্ভাব্য প্রথম একাদশ

রোহিত শর্মা, কেএল রাহুল, বিরাট কোহলি, বিজয় শঙ্কর, কেদার যাদব, এমএস ধোনি, হার্দিক পাণ্ডিয়া, কুলদীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চাহাল, ভুবনেশ্বর কুমার, যশপ্রীত বুমরা।

পাকিস্তানের সম্ভাব্য প্রথম একাদশ

ইমাম উল হক, ফখর জামান, বাবর আজম, মহম্মদ হাফিজ, সরফরাজ আহমেদ, আসিফ আলি, ইমাদ ওয়াসিম, ওয়াহাব রিয়াজ, শাদাব খান, হাসান আলি, মহম্মদ আমির।