বৃহস্পতিবার ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের ৩৪তম ম্যাচে প্রথম থেকেই প্রায় ওভার প্রতি ৫-এর বেশি করে রান করল ভারত।  কিন্তু ভারতের ক্রিকেট মডেল মেনে ডেথ ওভারে গিয়ার বদলে রানরেটটাকে ৬-এর উপরে নিয়ে যেতে এদিন কিন্তু পারলেন না ধোনি (৫৬) - পাণ্ডিয়া (৪৬)-রা। তার আগে বিরাট কোহলি ৭২ রান করে যান। সব মিলিয়ে ভারত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৬৮ রান করল।


বৃহস্পতিবার ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের ৩৪তম ম্য়াচে প্রথম থেকেই প্রায় ওভার প্রতি ৫-এর বেশি করে রান করল ভারত। যা ভারতের ক্রিকেট মডেল। কিন্তু ডেথ ওভারে গিয়ার বদলে রানরেটটাকে ৬-এর উপরে নিয়ে যেতে এদিন কিন্তু পারলেন না ধোনি (৫৬) - পাণ্ডিয়া (৪৬)-রা। তার আগে বিরাট কোহলি ৭২ রান করে যান। সব মিলিয়ে ভারত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৬৮ রান করল।

এদিন টসে জিতে ব্য়াট নেওয়ার পর ইনিংসের শুরুতেই রোহিত শর্মার উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছিল ভারত। বল রোহিতের ব্যাট ও প্যাডের ফাঁক দিয়ে যায় উইকেটরক্ষকের হাতে। আলট্রাএজ ব্যবস্থাতেও বল ব্যাটে লেগেছে কিনা তা স্পষ্ট বোঝা যায়নি। তা সত্ত্বেও তাঁকে আউট দেন তৃতীয় আম্পায়ার।

এরপর খেলা ধরেছিলেন কেএল রাহুল (৪৮) ও বিরাট কোহলি (৭২)। ২১তম ওভারে রাহুল ফিরতেই ফের উদ্ভূত হল ভারতের মিডল অর্ডার সমস্যা। বিজয় শঙ্কর (১৪) ও কেদার যাদব (৭) রান পেলেন না। আর ধোনি ৬১ বলে ৫৬ রান করলেও ডেথ ওভারে রানের গতি কিছুতেই বাড়াতে পারলেন না। তুলনায় ভাল ব্যাট করলেন হার্দিক পাণ্ডিয়া (৩৮ বলে ৪৬)।

ওয়েস্টইন্ডিজের দলে স্টোক প্লেয়ার প্রচুর। কাজেই এই রানটা তোলা তাদের পক্ষে সহজ মনে হতে পারে আপাতভাবে। কিন্তু, ওল্ড ট্রাপোর্ডের পিচ কিন্তু ক্রমে মন্থর হচ্ছে। তাই বড় শট খেলা তাঁদের পক্ষে সহজ নাও হতে পারে।