প্রোটিয়া পেসারদের দাপটে ৩ বল বাকি থাকতেই মাত্র ২০৩ রানে গুটিয়ে গেল শ্রীলঙ্কার ইনিংস। একেবারে প্রথম বলেই অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে (০)-কে হারিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু তারপর কুশল পেরেরা (৩০) ও আবিষ্কা ফার্নান্দো (৩০) লডা়ইটা ফিরিয়ে দিয়েথিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা শিবিরে। ওভার প্রতি প্রায় ৭ করে রান তুলে প্রথম পাওয়ার প্লে-র লডা়ইটা কিন্তু জিতে নিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কান ব্য়াটসম্যানরা।

কিন্তু ইংল্যান্ড ম্যাচের মতোই ভাল শুরু করার সুবিধাটা তারা নিতে পারলেন না। এরপর থেকেই ইনিংসে ছড়ি ঘোরালেন দক্ষিণ আফ্রিকার পেসাররা। বিশেষ করে দারুণ বল করলেন এই ম্য়াচেই দলে আসা ডোয়েন প্রিটোরিয়াস। ১০ ওভারে ২টি মেডেন-সহ মাত্র  ২৫ রান দিয়ে তিনি কুশল পেরেরা, আবিষ্কা ফার্নান্দো ও কুশল মেন্ডিস (২৩)-এর উইকেট তুলে নিয়ে শ্রীলঙ্কা ব্য়াটিং-এর মাথা মুড়িয়ে দেন।

ক্রিস মরিসও ৩ উইকেট নিলেন। তবে তিনি ৯.৩ ওভারে ৪৬ রান দেন। রাবাডা ২টি, পেহলুকাওইও ও ডুমিনি ১টি করে উইকেট নেন। মন্থর পিচে অতি রক্ষণাত্বক ব্যাট করে প্রোটিয়া বোলারদের আরো সুবিধা দেন শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানরা। এই পিচে কিন্তু রানন করাাটা সহজ নয়। ২০৩ রানটা লক্ষ্য হিসেবে খুবই কম। তবে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধেও খুব বেশি রান করতে পারেনি দ্বীপরাষ্ট্র। সেই ম্য়াচের মতো এদিনও মালিঙ্গা বাহিনী লঙ্কাকাণ্ড ঘটাতে পারেন কিনা সেটাই দেখার।