যে কারণে ভক্তদের মন বিশ্বকাপ ২০১৯-এর প্রথম ম্যাচেই ভক্তদের মন জয় করে নিয়েছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি, তার জন্যই আইসিসির শাস্তির মুখে পড়তে পারেন তিনি। আইসিসি বিসিসিআইকে জানিয়েছে ধোনির উইকেটকিপিং গ্লাভস থেকে সেনার 'বলিদান' ব্যাজের প্রতীক সরিয়ে ফেলতে হবে।
সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে আইসিসির স্ট্র্য়াটেজিক কমিউনিকেশনের মাথা ক্লেয়ার ফারলং জানিয়েছেন এটা আইসিসির নিয়ম বিরুদ্ধ। রবিবার অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে ধোনির গ্লাভসে যাতে ওই প্রতীক দেখা না যায় তার জন্য আইসিসি, ভারতীয় বোর্ডকে অনুরোধ করেছে তারা। এর জন্য কি ধোনিকে শাস্তির মুখে পড়তে হবে? ফারলং জানিয়েছেন, প্রথমবার বিধিভঙ্গের জন্য কোনও শাস্তি হবে না। অনুরোধ হয়েছে যাতে ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয়। কিন্তু, অস্ট্রেলিয়া ম্যাচেও যদি ধোনিকে একই কাজ করতে দেখা যায় তাহলে কিন্তু জরিমানা হতে পারে। 

আরও পড়ুন: ধোনির দস্তানা বিতর্কে আইসিসির সঙ্গে সংঘাতে বোর্ড! কী পদক্ষেপ নিল সিওএ

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ধোনির উইককিপিং গ্লাভসে ভারতীয় সেনাবাহিনীর 'বলিদান' ব্যাজের প্রতীক আঁকা ছিল। ৪০ তম ওভারে চাহালের বলে দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডার ফেহলুকাওইও-কে স্চাম্প আউট করার সময় ধোনির গ্লাভসে ওই প্রতীক প্রথম নজরে এসেছিল ক্রিকেট বিশ্বের।

সেনাবাহিনবীর প্রতি ধোনির এই অভিনব পদ্ধতিতে শ্রদ্ধা প্রদর্শন দেখে আবেগে উচ্ছ্বাসে ভেসে গিয়েছিলেন ধোনিভক্তরা। ধোনির গ্লাভস-এ 'বলিদান' ব্যাজের ওই ছবি ভাইরাল হয় সোশ্য়াল মিডিয়ায়। ম্যাচে ওই স্টাম্পিং ছাড়াও ধোনি ৩৪টি গুরুত্বপূর্ণ রানও করেছিলেন।

বরাবরই সেনাবাহিনীর প্রতি ধোনির আকর্ষণ রয়েছে। ২০১১ সালে ভারতকে দ্বিতীয় বিশ্বকাপ দেওয়ার পর তাঁকে ভারতীয় সেনবাহিনীর প্যারাস্যুট রেজিমেন্ট অব টেরিটোরিয়াল বাহিনীর সাম্মানিক লেফট্যানেন্ট কর্নেলের পদ দেওয়া হয়। সেই সময়ে  আগ্রাতে কিছুদিন প্যারা রেজিমেন্টের সঙ্গে তিনি প্যারা জাম্পিং-ও করেছিলেন।