টেস্ট সিরিজের শুরুটা বিশ্রীভাবে হয়েছে ভারতের। ওয়েলিংটনে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথমবারের জন্য কোনও ম্যাচ হেরেছে ভারত। দুই ইনিংসেই নিউজিল্যান্ডের বোলারদের বিষাক্ত সুয়িং-এর সামনে অসহায় দেখিয়েছে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের। সেই সমস্ত কথা ভুলে ক্রাইস্টচার্চে নতুন করে শুরু করতে চাইছে ভারতীয় দল। দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ জিতে পয়লা নম্বর টেস্ট দলের মতোই প্রত্যাবর্তন করতে চাইছেন বিরাট কোহলিরা। প্রত্যাবর্তনের মধ্যেও ভারতীয় কিছু ক্রিকেটারের চোখ থাকছে নতুন কিছু রেকর্ডের দিকে। 

আগের টেস্টে ম্যাচ হারতে হলেও ভারতের জন্য আশা দেখিয়েছিল দুটি সোনালি রেখা। একজন হলেন ভারতীয় ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়াল, অপরজন হলেন অভিজ্ঞ পেসার ইশান্ত শর্মা। একজন দ্বিতীয় ইনিংসে একমাত্র ভারতীয় ব্যাটসম্যান যিনি লড়াই করতে পেরেছেন। অপরজন ভারতীয় বোলিংয়ের জোয়াল একার কাঁধে টেনেছেন। ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে অর্ধশতরান করেছেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে বোলিংয়ে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন ইশান্ত। দুজনেই এখন দাঁড়িয়ে নতুন মাইলফলকের সামনে। 

আর মাত্র তিনটি উইকেট নিলে ষষ্ঠ ভারতীয় বোলার হিসাবে ৩০০ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করবেন ইশান্ত শর্মা। তবে এই মাইলফলকে পৌঁছানো বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সময় নিয়ে ফেলেছেন তিনি। ক্রাইস্টচার্চের ম্যাচে ৩০০ উইকেটের মাইলফলকে পৌঁছতে পারলে তার টেস্ট ম্যাচ সংখ্যা দাঁড়াবে ৯৬। এর আগে ৩০০ তম উইকেটে পৌঁছতে সবচেয়ে বেশি সময় নিয়েছিলেন ড্যানিয়েল ভিত্তোরী। তিনি সময় নিয়েছিলেন ৯৪ ম্যাচ। প্রসঙ্গত ৩০০ উইকেটের মাইলফলকে সবচেয়ে দ্রুত পৌঁছনো বোলারও এই ম্যাচ খেলতে চলেছেন। রবি অশ্বিন এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন মাত্র ৫৪ টেস্ট খেলে। তিনি ভেঙেছেন ডেনিস লিলির রেকর্ড যিনি ৫৬ টি টেস্টে ৩০০ উইকেটে পৌঁছেছিলেন। 

১০ টি টেস্টে ১৫ টি ইনিংস খেলে ৯৬৪ রান করেছেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। এই ম্যাচে যদি দুই ইনিংস মিলিয়ে ৩৬ রান করতে পারেন তবে দ্বিতীয় দ্রুততম ব্যাটসম্যান হিসাবে ১০০০ রানে পৌঁছনোর রেকর্ড করে ফেলবেন তিনি। এখন দেখার এই নতুন মাইলফলকে পৌঁছনোর সাথে সাথে ভারতকে সিরিজ বাঁচাতে সাহায্য করতে পারেন কিনা দুজন।