ভারত বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার পর থেকেই বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মা - ভারতীয় দলের দুই স্তম্ভের মধ্যে দ্বন্দ্বের জল্পনা চলছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় দলের এক সদস্যই সংবাদমাধ্যমের কাছে এই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কথা ফাঁস করে দিয়েছিলেন। এবার সেই জল্পনায় আরও ইন্ধন দিলেন রোহিত শর্মা।

এশিয়া কাপ ২০১৮-তে খেলেননি বিরাট। তাঁর বদলে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন রোহিত শর্মা। সেই সময়ই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিরাট কোহলিকে 'আনফলো' করেছিলেন হিটম্যান। তবে এতদিন বিরাট পত্নী তথা বলিউড অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মাকে ফলো করতেন রোহিত। কিন্তু দলে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জোর জল্পনা চলার মধ্যেই রোহিত টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে অনুষ্কা শর্মাকেও আনফলো করে দিলেন। আর তাতে দুই তারকা ক্রিকেটারের মধ্য়ের দ্বন্দ্বটা একেবারে প্রকাশ্যে চলে এল।

এর আগে কিন্তু দলের তরফে নানাভাবে এই দ্বন্দ্ব চেপে রাখার চেষ্টা হয়েছে। বোলিং কোচ ভরত অরুণ বলেছিলেন, দলে নানা মত নিয়ে তর্ক-বিতর্ক হয়। তবে সবার বক্তব্যকে সম্মান জানিয়ে শেষ পর্যন্ত সকলে মিলে একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। দলের ভিতরের খবর অবশ্য বলে যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার কোহলি-শাস্ত্রীই নিয়ে থাকেন। বাকি কারোর কথার তোয়াক্কা করা হয় না।

রোহিত-বিরাট দ্বন্দ্বের শুরুটা শোনা যায় হয়েছিল যখন বিরাটের সঙ্গে জড়িত স্পোর্টস ম্যানেজেন্ট সংস্থা থেকে নিজেদেরকে সরিয়ে নিয়েছিলেন রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। তারপর থেকে বিভিন্ন সময়ই নিজের দ্বিমত প্রকাশ করেছেন হিটম্যান। গত ইংল্যান্ড সফরে ভারতীয় হাইকমিশনের আমন্ত্রণে ভারতীয় দলের সঙ্গে গিয়েছিলেন বিরাটের স্ত্রী অনুষ্কা। টিম ফোটোতেও তিনি একেবারে মধ্যমনি হয়ে ছিলেনয যা নিয়ে প্রবল সমালোচনা হয়। এই নিয়ে নিে সরাসরি কিছু না বললেও, এক ভারতীয় ভক্তের করা 'এক এক খোলোয়াড়ের জন্য এক এক নিয়ম' মন্তব্যে লাইক করে তিনি নিজের অসন্তোষ বুঝিয়ে দিয়েছিলেন।