প্রথম ইনিংসে ৫৩ রানের লিড। দ্বিতীয় দিনের শেষে ৯ উইকেট হাতে নিয়ে এগিয়ে ৬২ রানে। তৃতীয় দিনে যে এইভাবে পাল্টাবে খেলার রং তা আন্দাজ করতে পারেনি তাবড় ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। পিঙ্ক বল টেস্টের তৃতীয় দিনে লজ্জার ইতিহাস গড়ল ভারতীয় দল। টেস্ট ভরতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে সবথেকে কম রানে অল আউট হওয়ার নজির গড়ল বিরাট কোহলির দল। ৩৬ রানে শেষ হয় ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস। আর ৯০ রানের টার্গেট অনায়াসে চেজ করে ঘরের মাঠে পিঙ্ক বল টেস্টে অপরাজিত থাকার রেকর্ড ধরে রাখল ব্যাগি গ্রিনরা।

দ্বিতীয় দিনে ৫৩ রানের লিড পেয়ে অ্যাডভান্টেজ ছিল ভারতীয় ক্রিকেট দল। অস্ট্রেলিয়া দলকে ১৯১ রানে অল আউট করার পর, ঐতিহাসিক পিঙ্ক বল টেস্টে জয়ের স্বপ্নও দেখতে শুরু করেছিল ভারতীয় দল থেকে দেশ জুড়ে ক্রিকেট প্রেমিরা। দ্বিতীয় দিনের শেষে ভারতীয় দলের স্কোর ছিল ১ উইকেটে ৯ রান। ক্রিজে ছিলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল ও নাইট ওয়াচম্যান জসপ্রীত বুমরা।  ৫৩ রানের লিড নিয়ে ৬২ রানে এগিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট দল। কিন্তু তৃতীয় দিনের শুরুতেই অস্ট্রেলিয়ার আগুনে বোলিংয়ের সামনে তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে ভারতীয় দলের ইনিংস।

ভারতের তারকা খোচিত ব্যাটিং লাইনআপের স্কোরলাইন সত্যিই লজ্জার। পৃথ্বি শ- ৪, মায়াঙ্ক আগরওয়াল- ৯, জসপ্রীত বুমরা- ২, চেতশ্বর পুজারা- ০, বিরাট কোহলি - ৪, অজিঙ্কে রাহানে- ০, হনুমা বিহারী- ৮, ঋদ্ধিমান সাহা- ৪, রবিচন্দ্রন অশ্বিন- ০, উমেশ যাদব- ৪, মহম্মদ শামি-১ (রিটায়ার্ড হার্ট)। অস্ট্রেলিয়ার জয়ের জন্য টার্গেট মাত্র ৯০ রান। এর আগে ভারতীয় দলের সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ৪২। ১৯৭৪ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৪২ রানে অলআউট হয়েছিল ভারতীয় দল। সেই রেকর্ড ভেঙে নতুন লজ্জার নজির অ্যাডিলেডের দিন-রাতের টেস্টে গড়ল ভারতীয় দল। 

৯০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে কোনও অসুবিধায় হয়নি ক্যাঙারু ব্রিগেডের। যেই অ্যাডিলেডের পিচে  প্যাট কামিন্স, জশ হ্যাজেলউডরা  আগুন ঝড়াচ্ছিলেন, সেই পিচেই মাত্র ৯০ রানের টার্গেট নিয়ে বল করতে নেমে দিশেহারা দেখায় ভারতীয় বোলারদের। মাত্র ২ উইকেট হারিয়েই জয়ের লক্ষ্যে পৌছে যায় অস্ট্রেলিয়া দল। দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ ৩৩ রান করেন ম্যাথু ওয়েড। রান আউট হন তিনি। আর একটি উইকেট পান রবিচন্দ্রন অশ্বিন। এই ম্যাচের হারের ফলে ৪ ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে গেল ভারতীয় দল। ২৬ তারিখ বক্সিং ডে টেস্টে ফের মুখোমুখি হবে দুই দল।