পাকিস্তান ও বাংলাদেশে এই দুই দেশের ক্রিকেটারদের উপর সব থেকে বেশি থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। পাকিস্তানের বর্তমান টিমের ১০ প্লেয়ার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও মহম্মদ হাফিজের রিপোর্ট আবার নেগেটিভ এসছে। অপরদিকে বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন দেশের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা সাংসদ মাশরফি মোর্তাজা, বর্তমানে বাংলাদেশের একদিনের দলের অধিনায়কর তামিম ইকবালের দাদা প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার নাফিস ইকবাল সহ তামিমের পরিবারের ৩ সদস্য। এছাড়া মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বাঁ-হাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু ও তার পরিবার। তাই এবার ক্রিকেটারদের সর্বক্ষণ মনিটারিংয়ের জন্য প্রযুক্তির সাহায্য নিতে চলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। 

আরও পড়ুনঃঅভিষেকেই ৮০ বছর আগের রেকর্ড ভেঙে দিলেন 'মেক্সিকান মেসি'

ঘরবন্দি ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্যসুরক্ষা নিশ্চিত করতে সর্বক্ষণ মনিটারিং করার জন্য নয়া এক অ্যাপ চালু করতে চলেছে বিসিবি। ক্রিকেটারদের জন্য থাকছে করোনা অ্যাপ। বিসিবির ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেমের ম্যানেজার নাসির আহমেদ জানান,'অ্যাথলিট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার অ্যাপের সঙ্গে কোভিড-১৯ ওয়েল বিয়িং অ্যাপ। এর মাধ্যমে ক্রিকেটারদের খোঁজখবর রাখা হবে। কোভিডের উপসর্গ বিষয়ক ১৮টি প্রশ্ন রয়েছে। যেমন- কতক্ষণ ঘুমিয়েছেন ? গায়ে জ্বর আছে কিনা , গায়ে ব্যথা আছে কিনা, কোভিড-১৯ রোগীর কাছাকাছি এসেছেন কিনা এইরকম। ক্রিকেটারদের দেওয়া তথ্যের মাধ্যমে অ্যাপটি জানিয়ে দেবে লাল-নীল-হলুদ কে কোন জোনে পড়তে চলেছে। বাকিটা মেডিক্যাল টিম দেখভাল করবে।'

আরও পড়ুনঃচশমা পড়া মহিলার সঙ্গে ডেটিং করতে চান সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, আপনার কাকে পছন্দ,তালিকায় রয়েছেন অনেকেই

আরও পড়ুনঃহঠাৎ ফুটবল মাঠে ওসামা বিন লাদেন, বিতর্কে লিডস ইউনাইটেড

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সিনিয়র ক্রিকেট দল, অনূর্ধ্ব-১৯ দল এবং চুক্তির আওতায় থাকা মহিলা ক্রিকেটারদের অ্যাপের আওতায় আনা হয়েছে বলে জানান বিসিবি-র সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরি। প্রাথমিকভাবে প্রথম পর্যায়ে ৭০ জন ক্রিকেটারকে নিয়ে শুরু করা হচ্ছে। পড়ে পরিস্থিতি বুঝে ও অ্যাপের উপকারিতা যাচাই করার সকল ক্রিকেটারদের অ্যাপের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। একের পর এক ক্রিকেটার আক্রান্ত হওয়ার খবরে চিন্তিত বাংলাদেশে ক্রিকেট বোর্ড। তাই এবার অ্যাপের মাধ্যমে সমস্যা ও দুশ্চিন্তার সুরাহা করতে চাইছে বিসিবি।