এদেশের মতই বাংলা দেশেও থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। ইতিমধ্যেই বাংলাদেশে করোন আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে। ক্রমাগাত বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। একইসঙ্গে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। পরিস্থিতি মোকাবিলায় ওপার বাংলাতেও চলছে লকডাউন। স্বাস্থ্য পরিষেবার দেওয়ার পাশপাশি সরকারের তরফে সচেতনতার বার্তাও দেওয়া হচ্ছে সরকারের তরফে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় এগিয়ে আসছেন বাংলাদেশের জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। সচেতনতার বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি সরকারের ত্রাণ তহবিলে অনুদান দিচ্ছেন ক্রিকেটাররা। ব্যক্তিগত উদ্যোগে জনসেবা করছেন বেঙ্গল টাইগাররা। এবার করোনা মোকাবিলায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে দুঃস্থদের পাশে দাঁড়ালেন  জাতীয় দলের অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন।

বিপদের দিনে ফুটবল বিশ্বকে সাহায্যের আশ্বাস ফিফার, ঘোষণা করা হতে পারে প্যাকেজ

ময়মনসিংহে মোসাদ্দেককে গরিবদের মধ্যে খাবারের প্যাকেট ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য বিতরণ করতে দেখা গিয়েছে। ২৪ বছর বয়সি ক্রিকেটার সেই ছবি পোস্ট করেছেন ফেসবুকে। ২০০ গরিব পরিবারের দায়িত্বও নিয়েছেন মোসাদ্দেক। মোসাদ্দেক ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, “পুরো দেশ আজ করোনাভাইরাসে স্তব্ধ হয়ে গেছে। ১৬ কোটি মানুষের এই দেশে প্রায় ৬ কোটির মতো মানুষ অসহায়। দিনে এক বেলা খাবার জোটাতে তাদের হিমশিম খেতে হয়। তারাই আজ সব চেয়ে বেশি বিপদে। নেই কোনও আয়, তাই পেটেও নেই খাবার। এই মুহূর্তে তাদের পাশে দাড়ানো মানুষ হিসেবে আমাদের দায়িত্ব।” বিপদের সময় সাহায্য পাওয়া মোসাদ্দেকে হোসেনকে প্রাণভরে আশির্বাদ করেছেন সকলে।

আরও পড়ুনঃকরোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃ্ত্যু হল মার্সেইয়ের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট পাফ দিউফের

আরও পড়ুনঃপ্রয়াত হলেন ডার্কওয়াথ লুইস পদ্ধতির অন্যতম উদ্ভাবক টনি লুইস

এর আগে বাংলাদেশের ক্রিকেটার তামিম ইকবাল জানিয়েছিলেন যে ২৭জন ক্রিকেটার তাঁদের বেতনের অর্ধেক দান করেছেন করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে। প্রাক্তন অধিনায়ক মাশরাফি মোর্তাজাও গরিবদের খাদ্য ও প্রয়োজনীয় দ্রব্য দিয়ে সাহায্য করেছেন। এবার মোসাদ্দেক হোসেনের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন দেশের ক্রীড়াবিদ থেকে সাধারণ মানুষ। প্রয়োজনে আগামি দিনে আরও মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন।