এই মুহূর্তে সুনীল গাভাসকার হয়তো বিশ্বের সবচেয়ে খুশি মানুষ। বলতে গেলে এক মধুর প্রতিশোধের পর এখন তিনি এক্কেবারে লাগাম ছাড়া। তাই কোনও রাখঢাক নেই। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতেই তিনি এক্কেবারে বুঝিয়ে দিলেন রাহানে, পন্থ, সিরাজ, নটরাজন, শার্দুল-দের লড়াই-এ কতটা উদ্বুদ্ধ! এশিয়ানেট নিউজ-কে পাঠানো বার্তায় গাভাসকার লিখছেন- 'কী একটা অসাধারণ সিরিজ প্রত্যক্ষ করার সুযোগ হল। এই মধুর স্মৃতি আমি বাকি জীবনে মনে রেখে দেব। আমার মনে হচ্ছে আমি চাঁদে চলে গিয়েছি এবং সেখানে ঘুরে বেড়াচ্ছি।' 

"

এই বার্তা পাঠানোর সঙ্গে সঙ্গে গাভাসকার এশিয়ানেট নিউজ-কে একটি ভিডিও এবং বেশকিছু ছবিও পাঠিয়েছেন। ভিডিও-তে দেখা যাচ্ছে হাতে ওয়াইনের গ্লাস নিয়ে ঘরের একদিন থেকে আরএকদিকে ঘুরে বেড়াচ্ছেন গাভাসকর। মাথার উপরে দুহাত তুলে তিনি খুশিতে হেঁটেবেড়াচ্ছেন। একহাতে ধরা রয়েছে ওয়াইন ভর্তি একটি গ্লাস। 

এই ভিডিও-র মাঝেই দেখা যাচ্ছে গাভাসকারকে এমনভাবে খুশিতে ডগমগ দেখে ঘরে উপস্থিত সমস্ত অতিথিরাও বেশি উৎফুল্লবোধ করছেন। এই অতিথিদের ভিড় ঠেলে একজন গিয়ে জড়িয়ে ধরলেন গাভাসকারকে। কে এই ব্যক্তি? গাভাসকর এশিয়ানেট নিউজকে পাঠানো বার্তায় জানিয়েছেন, এই ব্যক্তি আর কেউ নন, ব্রায়ান লারা। ক্রিকেট বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার। গাভাসকার জানিয়েছেন, লারা তাঁকে জড়িয়ে ধরেই চিৎকার বলে উঠেন- উই উইন। বাংলা করলে যার তর্জমা দাঁড়ায় আমরা জিতেছি। লারা-র এমন উক্তি শুনে তখন পার্টিতে উপস্থিত অস্ট্রেলিয় অতিথিদের মধ্যে হাসির রোল। 

গাভাসকার জানিয়েছেন, এই পার্টিটা আসলে ছিল চ্যানেল সেভেন-এর বিদায়বেলার আনন্দোৎসব। গত কয়েক মাস ধরে গাভাসকর, লারা-রা চ্যানেল সেভেন-এর বিশেষজ্ঞ হিসাবে কাজ করছিলেন। ভারত-অস্ট্রেলিয়া-র মধ্যে ক্রিকেট সিরিজ আপাতত শেষ। তাই এবার প্রত্যেকে বিদেশি বিশেষজ্ঞদেরই ঘরে ফেরার পালা। সেই উপলক্ষে পার্টির আয়োজন করেছিল চ্যানেল সেভেন। গাভাসকর লারার সঙ্গে আরও কিছু ছবি এশিয়ানেট নিউজ-কে পাঠিয়েছেন। সেখানে ধরা পড়েছে গাভাসকারের সঙ্গে লারার উচ্ছ্বাসের বিভিন্ন মুহূর্ত। 

অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের মধ্যে টেস্ট সিরিজ গাভাসকর-বর্ডার ট্রফি নামে পরিচিত। স্বাভাবিকভাবেই তাঁর অর্ধেক নামাঙ্কিত ট্রফি ভারত জিতে নিয়েছে, তাই খুশিতে যে লিটল মাস্টারের বাধ ভাঙেনি তা সহজেই অনুমেয়।