হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তারপর থেকে আর প্রকাশ্যে দেখা যায়নি বিসিসিআই প্রেসিডেন্টকে। চিকিৎসকদের পরামর্শ মতই বাড়িতে রয়েছেন সৌরভ। তবে অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের ঐতিহাসিক ড্রয়ের পর ট্যুইট করেছেন, ব্রিসবেনে হোটেলে ভারতীয় দল সমস্যায় পড়লে তার সমাধানও করেছেন। তবে অসুস্থতার পর এই প্রথম প্রকাশ্যে এলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। কারণ, শিলিগুড়ির পুর প্রশাসক ও বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্যের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ।

সৌরভ ও তার পরিবারের সঙ্গে অশোক ভট্টাচার্যের যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক সে কথা সকলেরই জানা। সৌরভ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার পর বুধবার দুপুরে দেখা করতে যান অশোক ভট্টাচার্য। দীর্ঘক্ষণ একসঙ্গে কথা বলেন তারা। সৌরভের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন সিপিএম নেতা। সাবধানে থাকার পরামর্শও দেন। তারপর বেরিয়ে আসেন। তাঁকে গাড়ি পর্যন্ত পৌঁছে দিয়ে যান সৌরভ নিজেই। এরপরই সৌরভের সঙ্গে ফেসবুকে ছবি শেয়ার করে অশোক ভট্টাচার্য লেখেন,'আজ সৌরভকে দেখে এলাম ওর বাড়িতে। ভাল আছে। আমাদের বাড়ির কুশল সংবাদ নিল। পরের স্টেন্ট বসাবে কয়েকদিন পর। বেশ কিছুক্ষণ আড্ডা মেরে আর চা খেয়ে ফিরে এলাম।' পাশাপাশি ছবিটি যে সৌরভের তোলা তাও পোস্টে জানান অশোক ভট্টাচার্য একইসঙ্গে সৌরভ তাকে গাড়ি পর্যন্ত এগিয়ে দিয়েছেন সেই কথাও জানান শিলিগুড়ির পুর প্রশাসক।

সৌরভ অসুস্থ হওয়ার আগে গত ৩০ জিসেম্বরও সৌরভের বাড়িতে গিয়েছিলেন অশোক ভট্টাচার্য। সেই সময় সৌরভের বিজেপি যোগের জল্পনা চলছিল। সৌরভকে রাজনীতিতে না আসার পরামর্শও দিয়েছিলেন অশোক ভট্টাচার্য। তারপরই সৌরভ অসুস্থ হয়ে পড়েন। হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীনও সৌরভরে খোঁজ নিয়েছিলেন অশোক বাবু। তবে এদিনের সাক্ষাৎ সম্পূর্ণ সৌজন্য মূলক বলে জানিয়েছেন শিলিগুড়ির পুর প্রশাসক।