করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জেরে স্তব্ধ গোটা দুনিয়া। বন্ধ সমস্ত স্পোর্টিং ইভেন্টা। ফুটবলের পাশাপাশি ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন ক্রিকেট খেলীয় দেশগুলি। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি ক্রিকেট খেলীয় দেশ দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। ক্ষতির ধাক্কা সামলানোর ক্ষমতা থাকলেও, মাথায় হাত পড়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ারও। ইতি মধ্যেই বেশির ভাগ কর্মীদের ছুটিতে পাঠানোর সিদ্ধান্তও নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ক্ষতি সামাল দিতে বিকল্প পথের কথাও ভাবছে অস্ট্রিলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তারা। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ইচ্ছে প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়া সফরে ৪ ম্যাচের বদলে ৫ ম্যাচের সিরিজ খেলুক ভারত।  কোহালিদের অস্ট্রেলিয়া সফর শুরু হওয়ার কথা অক্টোবরের শুরুতে। প্রথমে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। তার পরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বছরের শেষ থেকে স্মিথদের বিরুদ্ধে চারটি টেস্ট ম্যাচ। কিন্তু করোনা অতিমারির জেরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনিশ্চিত। শেষ পর্যন্ত যদি বিশ্বকাপ না হয় বা অন্য কোনও দেশে সরে যায়, তা হলে কোটি, কোটি টাকা ক্ষতির মুখে পড়বে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ইতিমধ্যেই বিশাল আর্থিক ক্ষতির আতঙ্ক তাড়া করছে তাদের। যে কারণে ভারতের বিরুদ্ধে চারের বদলে পাঁচ টেস্টের সিরিজ খেলে কিছুটা ক্ষতি সামলাতে চাইছে অস্ট্রেলীয় বোর্ড।

আরও পড়ুনঃএই মরসুমের জন্য সিঁরি আ বাতিলের আবেদন জানাল সাতটি ইতালিয়ান ক্লাব

আরও পড়ুনঃবিপর্যয়ের মোকাবিলায় কোচ এবং খেলোয়াড়দের মাইনে কমানোর সিদ্ধান্ত নিল আর্সেনাল ফুটবল ক্লাব

মঙ্গলবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান কেভিন রবার্টস জানিয়েছেন, বছরের শেষদিকে ভারতের বিপক্ষে পাঁচটি টেস্ট সিরিজ পরিচালনা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷ প্রয়োজনে ফাঁকা স্টেডিয়ামেও খেলা হতে পারে বলে জানান তিনি৷ রবার্টস আরও জানিয়েছেন যে, বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলকে অ্যাডিলডের ওভালের কাছে সমাপ্ত হতে চলা ১২৮ কক্ষের হোটেলে ‘কোয়ারেন্টাইন হাব’ করে রাখা যেতে পারে৷ যার ফলে কোনও অতিরিক্ত ভ্রমণ ছাড়াই ভারতীয় দল প্রশিক্ষণ এবং টেস্ট ম্যাচ খেলতে পারবে৷ তিনি আরও জানান, ‘আমরা সমস্ত কার্যকর বিকল্পগুলি অনুসন্ধান করব, যার মধ্যে অনেকগুলি এখন অবধি চিন্তা করা হত না। আমরা এমন এক অন্য বিশ্বে রয়েছি৷ যেখানে হঠাৎ করে আমরা যা কিছু সিদ্ধান্ত নিতে পারব না৷ যার জন্য পরে অনুশোচনা করতে হবে৷ বরং তার চেয়ে আমরা এমন কিছু করতে চাই যার জন্য কৃতজ্ঞ থাকব৷’ ভারতীয় বোর্ডের প্রতি আশাপ্রকাশ করে রবার্টস বলেন, ‘আমরা যা নিয়ে কাজ করছি তা বিসিসিআই-এর সঙ্গে আলোচনা করেই। ভবিষ্যতে পাঁচটি টেস্ট সিরিজ হোক বা না-হোক, পরবর্তী গ্রীষ্মে ক্রিকেট বিশ্বকে অনুপ্রাণিত করে এমন এক আন্তর্জাতিক টেস্ট সিরিজ আমরা আয়োজন করতে চাই৷ এটাই আমাদের লক্ষ্য। আমরা এটির জন্য পরিকল্পনা করছি৷ এর জন্য আমাদের যতটা সম্ভব চেষ্টা করতে হবে৷’ তবে সবকিছুই নির্ভর করছে করোনা ভাইরাস মহামারীর পরিস্থিতির উপর। সবরকম সম্ভাবনা নিশ্চিত করেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানানো হয়ছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াার তরফে। 

আরও পড়ুনঃ'ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব দিলে ওয়াসিম ভাইকে খুন করে দিতাম',বিস্ফোরক মন্তব্য শোয়েব আখতারের