অ্যাডিলেডে ভারত-অস্ট্রেলিয়া দিন রাতের টেস্টে প্রথম দিনের শেষে কিছুটা হলেও এগিয়ে রইল অস্ট্রেলিয়া। অধিনায়ক বিরাট কোহলির লড়াকু ৭২ রানের ইনিংস ও পুজারা-রাহানের ৪৩ ও ৪২ রানের ইনিংস ছাড়া ভারতীয় দলের প্রাপ্তি বলতে তেমন কিছু নেই। রাহানের ভুলে কোহলি রান আউট না হলে হয়তো চিত্রটা অন্যরকম হতে পারত। এদিন দিন-রাতের  ভারত-অস্ট্রেলিয়া ঐতিহাসিক টেস্টে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বিরাট কোহলি। দিনের শেষে ভারতের স্কোর ২৩৩ রানে উইকেট। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২টি উইকেট পান মিচেল স্টার্ক ও একটি করে উইকেট পান হ্যাজেলউড, কামিন্স, লায়ন।

এদিন টস জেতার পর ভারতের হয়ে ওপেন করতে নামেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল ও পৃথ্বী শ। কিন্তু শুরুতেই ভারতীয় দলকে ধাক্কা দেন অজি পেস ব্যাটারির অন্যতম প্রদান তারকা মিচেল স্টার্ক। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই স্টার্কের বলে খাতা না খুলেই বোল্ড হন পৃথ্বি শ। শূন্য রানে প্রথম উইকেট পড়ে টিম ইন্ডিয়ার। এরর ক্রিজে আসেন মিডল অর্ডারের স্তম্ভ চেতশ্বর পুজারা। মায়াঙ্ক আগরওয়াল ও চেতস্বর পুজারা জুটি এগিয়ে নিয়ে য়াওয়ার চেষ্টা করেন ভারতীয় দলের ইনিংস। কিন্তু দলের ৩২ রানের মাথায় আউট হন মায়াঙ্ক। তিনি করেন ১৭ রান। মধ্যার্ন বিরতিতে ভারতের স্কোর ছিল ৪১ রানে ২উইকেট। 

লাঞ্চের পর বিরাট কোহলি ও চেতশ্বর পুজারা ধীরে ধীরে ভারতীয় দলের ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যান। রান ধীর গতিতে উঠলেও উইকেট বাঁচিয়ে রাখেন পুজারা-কোহলি জুটি। তৃতীয় উইকেটে অনবদ্য ৬৮ রানের পার্টনারশিপ করেন দুই তারকা ব্যাটসম্যান। বেশ কয়েকটি চোখ ধাঁধানো শটও খেলেন বিরাট কোহলি ও চেতশ্বর পুজারা। কিন্তু দলের ১০০ রানের মাথায় তৃতীয় উইকেট পড়ে ভারতের। ৪৩ রান করে নাথান লায়নের শিকার হন তিনি। চা-বিরতির শেষে ভারতীয় দলের স্কোর ছিল ১০৭ রানে ৩ উইকেট। ক্রিজে ছিলেন অজিঙ্কে রাহানে ও  বিরাট কোহলি। 

দিনের শেষ পর্বের খেলায় অধিনায়ক ও সহ অধিনাক জুটি ভারতের ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। নিজের অর্ধশতরানও পূরণ করেন বিরাট কোহলি। দুরন্ত ছন্দে দেখাচ্ছিল বিরাট কোহলিকে। কিন্তু ৮৮ রানের পার্টনারশিপ করার পর দলের ১৮৮ রানের মাথায় রাহানের ভুলে রান হন কোহলি। তিনি করেন ৭৪ রান। এরপর নির্দিষ্ট ব্যবধানে উইকেট পড়তে থাকে ভারতের। ৪২ রান করে স্টার্কের বলে আউট হন রাহানে ও ১৬ রান করে হ্যাজেলউডের শিকার হন হনুমা বিহারী। দিনের শেষে ক্রিজে রয়েছে ঋদ্ধিমান সাহা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন।